top of page

অবশেষে নিহত কিশোরীর বাড়িতে রাজ্য কমিশন, উঠছে প্রশ্ন

কালিয়াচকে ধর্ষণের পর খুনের ঘটনা দুই সপ্তাহের বেশি সময় হয়ে গিয়েছে। এতদিনে নিহত নাবালিকার বাড়িতে এল রাজ্য শিশু সুরক্ষা কমিশন। কালিয়াগঞ্জে শিশু সুরক্ষা কমিশনের রিপোর্ট জমা দেওয়ার পরে পুলিশের হাত থেকে তদন্ত দায়িত্ব কেড়ে নেওয়ায় কি ঘুম ভাঙল রাজ্য কমিশনের সেই প্রশ্নই মাথা চাড়া দিতে শুরু করেছে মালদায়।


উল্লেখ্য, ২১ এপ্রিল কালিয়াগঞ্জে নাবালিকার দেহ উদ্ধারের ঘটনায় তোলপাড় পড়ে যায় রাজ্য জুড়ে৷ সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতে ২৫ এপ্রিল কালিয়াচক-১ নম্বর ব্লকে খেত থেকে উদ্ধার হয় আরও এক কিশোরীর দেহ৷ সেই রাতেই গ্রেফতার করা হয় এই ঘটনার মূল অভিযুক্তকে৷ ধৃত যুবক পুলিশি জেরায় স্বীকার করে, তাদের মধ্যে শারীরিক সম্পর্ক হয়, পরে সে তাকে খুন করে। ঘটনার পর সমস্ত বিরোধী দলের নেতৃত্বরা পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। এমনকি কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করার কথাও উঠে আসে বিরোধী নেতাদের মুখে।


কালিয়াচকে নাবালিকার দেহ উদ্ধারের ঘটনা দুই সপ্তাহ অতিক্রান্ত হলেও নির্যাতিতার পরিবারের সঙ্গে দেখা করেনি রাজ্য শিশু সুরক্ষা কমিশন। অবশেষে আজ নিহত কিশোরীর বাড়িতে আসেন রাজ্য শিশু সুরক্ষা কমিশনের চেয়ারপার্সন সুদেষ্ণা রায়৷ তিনি নিহতের মা সহ পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন৷



সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয় তিনি জানান, পুলিশ তদন্ত করছে৷ তদন্ত রিপোর্ট আদালতকেও দেওয়া হয়েছে৷ তদন্ত এখনও চলছে৷ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ বাড়ির লোকদের অভিযোগ রয়েছে কিনা তা জানতে এসেছিলেন। কিন্তু ঘটনার এতদিন পরে নিহত কিশোরীর বাড়িতে কেন, এপ্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আগেও এই ঘটনা নিয়ে খোঁজ নেওয়া হয়েছিল৷ কে কি বলছে, তা ভেবে কাজ হয় না। অন্যান্য কাজে মালদায় এসেছিলেন। সুযোগ থাকায় ওই পরিবারের সঙ্গে দেখা করেছেন তাঁরা।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page