top of page

মালদা শহরে ভুয়ো ডাক্তারের চেম্বার, পুলিশের হানা

অন্য চিকিৎসকের নামে প্রাইভেট চেম্বার খুলে ডাক্তারি করছিল ডেলিভারী বয়। অবশেষে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে পর্দা ফাঁস করল পুলিশ। আটক করা হয়েছে ওই ব্যক্তিকেও। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে মালদা শহরে।


মালদা শহরের ডাক্তার পাড়া হিসেবে পরিচিত সিঙ্গাতলার চারমাথা মোড়ে একটি ওষুধের দোকানের পাশেই ব্যক্তিগত চেম্বার খুলেই প্রাইভেট প্র্যাকটিস শুরু করেছিলেন ডাক্তার শুভদীপ ব্যানার্জি। গত দু’মাস ধরে চলছিল ক্লিনিক। চিকিৎসাও করাচ্ছিলেন কিছু রোগী। অবশেষে গোপন সূত্রের খবরের ভিত্তিতে আজ দুপুরে পুলিশ আধিকারিকরা ওই ডাক্তারকে হাতেনাতে ধরে। জানা যায় ওই ব্যক্তির আসল নাম দেব বর্মণ। বাড়ি নলহাটিতে।


এদিকে যে ওষুধের দোকানের সহযোগিতা নিয়ে ওই ভুয়ো ডাক্তার প্রাইভেট প্র্যাকটিস চেম্বার খুলেছিলেন সেই ওষুধের দোকানের বিরুদ্ধেও বিস্তর অভিযোগ রয়েছে। ওই দোকানের জানান, দুইমাস আগে কোন এক রিপ্রেসেন্টেটিভের মাধ্যমেই এই ডাক্তারের সন্ধান পেয়েছিলাম। তারপর থেকে উনি নিজের মতোই প্রাইভেট প্র্যাকটিস করছিলেন। কিন্তু উনি ভুয়ো ডাক্তার সেজে চিকিৎসা চালাচ্ছেন তা ভাবতে পারেননি তাঁরা।



রোগীকে দেখাতে আসা আত্মীয়রা জানাচ্ছেন, ৫০০ টাকা ভিজিট নিত ওই ডাক্তার। দীর্ঘদিন ধরে আত্মীয়দের ওই চিকিৎসকের কাছে দেখাচ্ছিলেন তাঁরা। ওষুধ ও দিয়েছে কিন্তু কোন কিছু টেস্ট করতে দিত না। অনেকবার ডাক্তারকে বলা হয়েছিল, শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য। কিন্তু শুধু ওষুধই প্রেসক্রিপশনে লিখে দিত। ভুয়ো ডাক্তারের লেখা ওষুধের কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হয়েছে কিনা তা জানা নেই। তবে ওই ভুয়ো ডাক্তারের শাস্তি চাইছেন তাঁরা।




আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page