top of page

মেডিকেল কলেজ থেকে জানালা ভেঙে পালাল বাংলাদেশি বন্দি

মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের সেলের জানালা ভেঙে পালিয়ে গেল এক বাংলাদেশি বন্দি৷ আজ ভোরে মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে সেলের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশকর্মীদের সেই ঘটনা নজরে আসে৷ ইতিমধ্যেই নিরাপত্তা নিয়ে নানারকম প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।


জানা গিয়েছে, পলাতক বাংলাদেশির নাম সফিকুল ইসলাম (৩৪)৷ বাড়ি বাংলাদেশের নওগাঁ জেলার পাচক কামারডাঙা গ্রামে৷ অভিযোগ, মাঝেমধ্যেই সে সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে এসে স্থানীয় দুষ্কৃতীদের সঙ্গে চুরি, ছিনতাই, ডাকাতির মতো দুষ্কর্ম ঘটায়৷ জেলা সহ রাজ্যের বিভিন্ন থানায় তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে৷ সম্প্রতি সে কালিয়াচক থানার পুলিশের হাতে ধরা পড়ে৷ গত ৮ মার্চ মামলার কারণে তাকে হাওড়া নিয়ে যাচ্ছিল পুলিশ৷ কিন্তু ট্রেনেই অসুস্থবোধ করায় তাকে ফের মালদা ফিরিয়ে আনা হয়৷ ভর্তি করা হয় মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে৷ মেডিকেল কলেজের পুরুষ মেডিসিন ওয়ার্ডের দোতলায় বন্দিদের সেলেই তার চিকিৎসা চলছিল৷ এদিন ভোরে সেলের নিরাপত্তারক্ষীরা দেখেন, সফিকুল নেই৷ তখনই তাঁদের নজরে আসে, সেলের জানালার গ্রিল ভাঙা৷ জানালা থেকে ঝুলছে দড়ি৷ সকলেই বুঝতে পারে সেই জানালা দিয়েই সফিকুল পালিয়ে গিয়েছে৷

এই ঘটনায় নানারকম প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, সেলের মধ্যে সফিকুল দড়ি পেল কীভাবে ? সেলে থাকা অন্যান্য বন্দিরা সহ নিরাপত্তারক্ষীরা কেন জানালা ভাঙার শব্দ পেল না? সেসবের উত্তর এখনও পাওয়া যায়নি৷ আপাতত ওই সেলের কাছে যেতে দেওয়া হচ্ছে না কাউকে৷ তড়িঘড়ি ঘটনার তদন্তে নেমে পড়েছেন পুলিশকর্তারা।

আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Comentarios


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page