top of page

রথবাড়িতে গ্রেফতার কুখ্যাত মোটরবাইক চোর

বেশ কয়েকমাস ধরে জেলায় বেড়ে চলেছে মোটরবাইক ও গাড়ি চুরির সংখ্যা। তা রুখতে কোমর বেঁধে নেমেছে পুলিশ প্রশাসন। শুরু হয়েছে মোটরবাইকের কাগজপত্র পরীক্ষা ও চোরদের জন্য বিভিন্ন স্থানে তল্লাশি। আর এতে সাফল্য মিলেছে পুলিশের। ইংরেজবাজার ও মালদা থানা নিজ নিজ এলাকা থেকে বেশ কিছু করে বাইক সহ বিভিন্ন বাইক চোরদের গ্রেফতার করে চুরি যাওয়া মোটরবাইক উদ্ধার করেছে।


গোপন সূত্রে খবর পেয়ে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ মালদা শহরের রথবাড়ি মোড় এলাকায় হানা দিয়ে একটি লাল রঙের অ্যাপাচি আরটিআর ব্র্যান্ডের চোরাই মোটরবাইক সহ ৩ যুবককে গ্রেফতার করে। পুলিশ সূত্রে জানা যায় ইংরেজবাজার থানার এসআই সত্য ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে একটি সাদা পোষাকের পুলিশ দল রথবাড়ি এলাকায় হানা দিয়ে গ্রেফতার করে তিন কুখ্যাত চোরাই মোটরবাইক চোরের একটি দলকে। ধৃত যুবকদের নাম হাসিব শেখ (১৭), মুজাফফর হক ( ১৬) ও রাজু শেখ (১৭)। এরা সকলেই কালিয়াচকের সুজাপুরের বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দা। পুলিশ সূত্র অনুযায়ী দীর্ঘদিন ধরে এরা বাইক চুরির সাথে যুক্ত। আজ ধৃতদের মালদা জেলা আদালতে পেশ করে ৭ দিনের পুলিশ রিমান্ড চেয়েছে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ। পুলিশের অনুমান ধৃতদের রিমান্ডে পাওয়ার পর জিজ্ঞসাবাদ করে আরও বেশ কিছু মোটরবাইক চোর ও দুষ্কৃতীদের খবর পাওয়া যাবে।


রথবাড়িতে গ্রেপ্তার কুখ্যাত মোটরবাইক চোর

অন্যদিকে নভেম্বর মাসের ১০ তারিখে পুরাতন মালদার মুচিয়া থেকে হারাধন চৌধুরি নামে এক ব্যাক্তির মোটরবাইক ছিনতাই করে বেশ কিছু দুষ্কৃতী। এই ঘটনায় হারাধন চৌধুরি মালদা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগ পেয়ে মালদা থানার পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমে পুরাতন মালদার মঙ্গলবাড়ির বাচামারি গভমেন্ট কলোনি থেকে তিন দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করে মালদা থানার পুলিশ। ধৃতদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় হারাধন চৌধুরির ছিনতাই হয়ে যাওয়া মোটরবাইকটি। এছাড়াও পুলিশ তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করেছে একটি মোটরবাইক ও একটি টোটো। ধৃতদের নাম দশরথ মণ্ডল, সম্রাট মণ্ডল ও ভগীরথ মণ্ডল। এদের প্রত্যেকের বাড়ি পুরাতন মালদার মৌলপুর লেবু বাগান ও মঙ্গলবাড়ির রবীন্দ্রপল্লী এলাকায়। ধৃতদের বুধবার মালদা জেলা আদালতে পেশ করে পাঁচ দিনের পুলিশি হেফাজতে নিয়েছে মালদা থানার পুলিশ।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

תגובות


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page