top of page

হরিশ্চন্দ্রপুরে নির্বাচনি হিংসার অভিযোগ, থানা ঘেরাও বিজেপির

প্রচার শুরু হতেই নির্বাচনি হিংসার অভিযোগ উঠেছে উত্তর মালদায়। দুদিন আগেই বিজেপি কর্মীর বাড়ির হামলার অভিযোগ উঠেছে শাসকদলের বিরুদ্ধে। থানায় অভিযোগ জানাতে যাওয়ার সময় ফের আক্রান্তদের ওপর হামলার অভিযোগ তুলেছে গেরুয়া শিবির। যদিও তৃণমূলের দাবি, বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা তৃণমূল নেতার ওপর হামলা চালিয়েছে। গোটা ঘটনাকে কেন্দ্র করে চরম উত্তেজনা তৈরি হয়েছে হরিশ্চন্দ্রপুরে। আজ দলীয় কর্মীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে ও দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে হরিশ্চন্দ্রপুর থানা ঘেরাও করে বিজেপি। বিজেপির এই কর্মসূচির নেতৃত্ব দেন উত্তর মালদার বিদায়ী সাংসদ তথা বিজেপি প্রার্থী খগেন মুর্মু।


খগেনবাবু বলেন, গত ২৬ মার্চ তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা আমাদের দলের কর্মীদের ওপর হামলা চালায়। এই ঘটনায় কয়েকজনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে৷ ফের অভিযুক্তরা আমাদের দলের কর্মী শিবু দাস ও অসিত দাসকে মারধর করে৷ ওদের হামলায় আমাদের ১০ জন কর্মী আহত হলেও এখনও পুলিশ অভিযুক্তদের গ্রেফতার করছে না। কেন ওই দুষ্কৃতীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে না তা জানতে আমরা আইসির কাছে এসেছি। পুলিশ অভিযুক্তদের গ্রেফতার না করা পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে। পুলিশ যদি নিরাপত্তা না দিতে পারে তবে থানা থাকার মানে কি? পুলিশ না পারলে সাধারণ মানুষ এর বিচার করবে।



এনিয়ে হরিশ্চন্দ্রপুর-১ নম্বর (এ) ব্লক সভাপতি জিয়াউর রহমান জানান, গতকাল আমাদের এক কর্মী পূজন দাসের ওপর বিজেপি আশ্রিত গুণ্ডারা হামলা চালায়। ওনার এলাকায় বিজেপি রাজনৈতিক লড়াইয়ে টিকে থাকতে না পেরে এধরণের ঘটনা ঘটাচ্ছে। এই ঘটনায় আমরা পুলিশে অভিযোগ জানিয়েছি। তা জানতে পেরে বিজেপি পালটা অভিযোগ করেছে। এখন সাধারণ মানুষকে ভুল বোঝাতে থানা ঘেরাও করে নাটক করছে বিজেপি।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Comentários


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page