top of page

নিউ নর্ম্যালে ছট উদযাপন, জলাশয়ে কচুরিপানা নিয়ে ক্ষোভ চাঁচলে

ছটপরব উপলক্ষ্যে মালদা শহরের মিশনঘাট পরিদর্শন করলেন জেলা প্রশাসনের প্রতিনিধিদল। উপস্থিত ছিলেন পুলিশসুপার অলোক রাজোরিয়া, ডিএসপি হেডকোয়ার্টার প্রশান্ত দেবনাথ, ইংরেজবাজার থানার আইসি মদনমোহন রায়, ইংরেজবাজার পুরসভার প্রশাসক তথা বিধায়ক নীহাররঞ্জন ঘোষ সহ অন্যান্যরা। ছটের ভিড় দেখা যায় চাঁচলের ঘাটগুলিতে। তবে সেখানে জলাশয়ে কচুরিপানা ভরতি থাকায় ক্ষোভে ফেটে পড়েন ভক্তরা।


বিধায়ক তথা ইংরেজবাজার পুরসভার প্রশাসক নীহাররঞ্জন ঘোষ জানান, এবারে ড্রোন ক্যামেরার মাধ্যমে নজরদারি চালানো হবে। মহানন্দা নদীর জল অনেকটাই কমেছে তাই মাটি ফেলে ঘাট উঁচু করা হচ্ছে। পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা করা হয়েছে।



পাশাপাশি চাঁচলের ঘাটগুলিতে ছটের ভিড় দেখা যায়। চাঁচলের সুইমিংপুলের জলাশয়ে কচুরিপানা ভরতি থাকায় ক্ষোভে ফেটে পড়েন ভক্তরা। চাঁচলের এক বাসিন্দা শিবপ্রসাদ আগরওয়ালা জানান, দেশকে ভালো রাখতে সমাজকে ভালো রাখতেও পরিবেশকে ভালো রাখতে সূর্য দেবতার আরাধনা, এই ছটপুজোর ব্রত করা হয়। কিন্তু ঘাটে এসে পঞ্চায়েতের গাফিলতি দেখা গেল। যে পুকুরে বা জলাশয়ে চাঁচলের অধিকাংশ বাসিন্দারা ছটপুজো করেন সেই জলাশয় নোংরা, আবর্জনায় পরিপূর্ণ। বিশেষ করে গোটা জলাশয়টি কচুরিপানায় ভরতি রয়েছে। পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে জলাশয় পরিষ্কারের কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। নিজেরাই কচুরিপানা সরিয়ে পুজো করতে হল।




চাঁচল গ্রামপঞ্চায়েতের উপপ্রধান উৎপল তালুকদার জানান, পঞ্চায়েতে তরফ থেকে ছটপরব উপলক্ষ্যে সবরকম ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ঘাট পরিষ্কারের পাশাপাশি পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। তবে সুইমিংপুল জলাশয়ের মধ্যে কচুরিপানা রয়েছে। তবে সেগুলো পরিষ্কার করা হয়নি কারণ, পুকুরের যে মালিক তিনি যদি পুকুর পরিষ্কার না করতে চান তাহলে পঞ্চায়েত কীভাবে তা পরিষ্কার করবে?


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page