top of page

মন্ত্রীর প্রতিশ্রুতির পরেও মেলেনি চাকরি, জেলাশাসকের দ্বারস্থ মহিলারা

রাজ্য সরকারের তরফে মন্ত্রীর প্রতিশ্রুতির পরেও এখনও চাকরি মেলেনি কার্পেট কারখানায় বিস্ফোরণে মৃত শ্রমিকদের পরিবারের সদস্যদের। আজ ফের চাকরির দাবিতে জেলাশাসকের দ্বারস্থ হয়েছেন পরিবারের লোকজন। সঙ্গে ছিলেন আরএসপি জেলা সম্পাদক।


২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে উত্তরপ্রদেশের ভাদোহিতে কার্পেট কারখানায় বিস্ফোরণে মালদার মানিকচক ব্লকের এনায়েতপুর গ্রামের ৯ জন পরিযায়ী শ্রমিকের মৃত্যু হয়। সেই সময় রাজ্য সরকারের পক্ষে মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম ও জেলা প্রশাসনের কর্তারা মৃত শ্রমিকের পরিবারের হাতে ২ লক্ষ টাকা আর্থিক অনুদানের পাশাপাশি যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। সেই ঘটনার পাঁচ বছর হতে চললেও এখনও মৃত শ্রমিকের পরিবারগুলির কোনও সদস্য চাকরি পাননি বলে অভিযোগ।


মৃত শ্রমিকদের স্ত্রী সুলতানা বিবি, সাবিনা খাতুন জানান, মন্ত্রী-জেলাশাসক চেক দেওয়ার পাশাপাশি যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরি ও চাকরি না পাওয়া পর্যন্ত রেশন দেওয়ার কথা বলেছিলেন। প্রথম মাসে রেশন দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তারপর থেকে আর কেউ তাঁদের খোঁজ নেয়নি। চাকরির জন্য বহুবার প্রশাসনের কাছে গিয়েছেন, কিন্তু কোনও সুরাহা হয়নি। বাধ্য হয়ে আজ আবার তারা জেলাশাসকের দ্বারস্থ হয়েছেন।


আরএসপির সম্পাদক সর্বানন্দ পাণ্ডে জানান,

মৃত পরিযায়ী শ্রমিকের পরিবারের সদস্যদের চাকরির দাবি নিয়ে আরএসপি প্রথম থেকেই আন্দোলন করে যাচ্ছে। এই পরিবারগুলির সদস্যরা যাতে চাকরি পান তার জন্য বিভিন্ন দফতরে আবেদন করা হয়েছে। কিন্তু এখনও কারও চাকরি হয়নি।


এনিয়ে মালদা জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সহ-সভাপতি বাবলা সরকার জানান,

বাংলায় একশো দিনের কাজ বন্ধ করে দেওয়ায় শ্রমিকরা কাজ পাচ্ছেন না। তাই তাদেরকে বাইরে যেতে হচ্ছে। আমাদের সরকার পরিযায়ী শ্রমিকদের পাশে ছিল, এখনও রয়েছে, ভবিষ্যতেও থাকবে। মৃত শ্রমিকদের পরিবারের চাকরি দেওয়ার বিষয়টি নিয়ে সরকার নিশ্চিতভাবে চিন্তাভাবনা করছে।

আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Comentarios


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page