top of page

জাল দলিল চক্র বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ চাঁচলে

ভূমি ও ভূমি সংস্কার আধিকারিকের স্বাক্ষর জাল করে জমি কেনাবেচা করার অভিযোগ চাঁচলে। চাঁচল-২ নং ব্লকের বিএলএলআরও অফিসে সোমবার ভুয়ো দলিল লেখকের শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ দেখান লাইসেন্সপ্রাপ্ত দলিল লেখকরা। বিষয়টি খতিয়ে দেখে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকের নজরে আনা হবে জানিয়েছেন বিএলএলআরও আধিকারিক।



চাঁচল-২ বিএলএলআরও ও দলিল লেখক সূত্রে জানা গেছে, চাঁচল-২ নং ব্লক 'ল' ক্লার্ক অ্যাসোসিয়েশনে প্রায় ৪০ জন অনুমোদনপ্রাপ্ত দলিল লেখক রয়েছেন। তাঁদের অভিযোগ, এই দফতরে জাল দলিল লেখকের রমরমা কারবার চলছে। এমনকি গায়ের জোড়ে জমি কেনাবেচার কাজ করছে। বিএলএলআরও আধিকারিকের নাকের ডগায় ভুয়ো দলিল লেখকদের মারফতে জালিয়াতি করে জমি কেনাবেচা সক্রিয় হয়ে উঠেছে বলে অভিযোগ।


বিষয়টি নিয়ে বিএলএলআরও আধিকারিককে জানিয়েও কোনও সুরাহা হয়নি বলে অভিযোগ লাইসেন্সপ্রাপ্ত দলিল লেখক নাজিরুল ইসলামের। জাল দলিল চক্র বন্ধের দাবিতে সরব হওয়ায় তাদের সংগঠনের সম্পাদক মোহম্মদ খলিলর রহমানকে বাড়ি যাওয়ার পথে বেধড়ক মারধর করে ভুয়ো দলিল লেখকরা বলে অভিযোগ।




পুরো ঘটনাটি জানিয়ে চাঁচল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল বলে জানান সংগঠনের সদস্যরা। জাল দলিল বন্ধের দাবিতে ব্লক প্রশাসন ও চাঁচল মহকুমা ভূমি ও ভূমি সংস্কারক আধিকারিককে লিখিত আকারে বিষয়টি জানিয়েছেন ওই সংগঠন। সোমবার টানা দু-ঘণ্টা চাঁচল-২ নং ব্লক ভূমি সংস্কারক দফতর ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখানো হয়। দাবি না মানা হলে বৃহত্তর আন্দোলনে নামার হুশিয়ারি দিয়েছেন তাঁরা।




যদিও ভুয়ো দলিল চক্রের বিষয়ে চাঁচল-২ নং ব্লকের বিএলএলআরও রামপ্রসাদ চাকি বলেন, সই জাল করার বিষয়টি আমার জানা নেই। এছাড়া লাইসেন্সপ্রাপ্ত দলিল লেখকদের সমস্যা আমার আওতায় পড়েনা। তবুও তাদের সমস্যা নিয়ে আমি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানাব।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Comments


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page