top of page

বিক্ষিপ্ত ভাঙন শুরু ভূতনিতে, অবিলম্বে ভাঙন রোধের কাজ শেষ করার দাবি

বর্ষার মরশুম আসতেই বিক্ষিপ্ত ভাঙন শুরু হয়েছে মানিকচকের ভূতনি চরের বিস্তীর্ণ এলাকায়। বিগত বছরগুলির মতো ভাঙন শুরু হলে আর রক্ষে নেই। সেই আতঙ্কে ঘুম উড়েছে এলাকাবাসীর। অবিলম্বে ভাঙন রোধের কাজ শেষ করার দাবি তুলেছেন স্থানীয়রা।


প্রতিবছর বর্ষায় তীব্র ভাঙন দেখেছে হিরানন্দপুর গ্রামপঞ্চায়েতের বাসিন্দারা। এবছরও বর্ষার মরশুম আসতেই জল বাড়তে শুরু করেছে গঙ্গায়। বিক্ষিপ্ত ভাঙন দেখা দিয়েছে হিরানন্দপুর গ্রামপঞ্চায়েতের সুকসেনা ঘাট, কেশবপুর সহ বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে। আর এতেই আতঙ্ক দেখা দিয়েছে নদী তীরবর্তী বাসিন্দাদের।



স্থানীয় বাসিন্দারা জানাচ্ছেন, বেশ কিছু এলাকায় ভাঙন রোধের কাজ চলছে। দ্রুত এই কাজ না হলে সমস্যায় পড়তে হবে। নদী বাঁধের দোড়গোড়ায় এসে পৌঁছলে বাঁধ যেকোনো মুহূর্তে ভেঙে যাবে। প্রশাসনের কাছে তড়িঘড়ি ভাঙন রোধের কাজ শেষ করার দাবি জানিয়েছেন তাঁরা।




মানিকচক পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কবিতা মণ্ডল জানান, কয়েকদিন আগে সমস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছেন মন্ত্রী সহ প্রশাসনের কর্তারা। বেশ কিছু এলাকায় কাজ চলছে। নতুন করে যে সমস্ত এলাকায় ভাঙন দেখা দিয়েছে তার রিপোর্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে দেওয়া হবে।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page