top of page

জলাধার তৈরিতে কাটমানি? পানীয় জলের অভাবে গ্রামবাসী

মাস দুয়েক আগে জলাধার নির্মাণের কাজ শেষ হলেও এখনও চালু হয়নি জলাধার। এনিয়ে বিজেপির পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে কাটমানি নেওয়ার অভিযোগ তুলেছে শাসকদল। যদিও সমস্ত অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন পঞ্চায়েত প্রধান। অবিলম্বে জলাধার চালু করার দাবি তুলেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।


রতুয়া ১ নম্বর ব্লকের কাহালা গ্রামপঞ্চায়েতের নরোত্তমপুর দিয়ারা গ্রামের বুড়িমা দুর্গামন্দির সংলগ্ন এলাকায় মাস দুয়েক আগে একটি জলাধার তৈরি করা হয়। ঠিকাদারের সমস্ত বিলও মিটিয়ে দেওয়া হয়। অথচ জলাধারে এখনও জলের সংযোগই করা হয়নি। ফলে বিপাকে পড়েছেন ওই এলাকার বাসিন্দারা। এলাকাবাসীর দাবি, দুই মাস আগে জলাধার তৈরি হলেও এখনও জলের সংযোগ হয়নি। ফলে সকলের সমস্যা হচ্ছে। জলাধার চালু হলে বেশ কয়েকটি গ্রামের মানুষ উপকৃত হবেন। দ্রুত জলাধার চালু করার উদ্যোগ নেওয়া হোক।



রতুয়া-১ নম্বর ব্লক তৃণমূলের সহসভাপতি রাজেশ সিংহ জানান, কাহালা গ্রামপঞ্চায়েত বিজেপি পরিচালিত৷ যে সময় থেকে বিজেপি পঞ্চায়েতের দখল নিয়েছে সেই সময়ের পর থেকে সমস্ত কাজ অত্যন্ত নিম্নমানের হয়েছে। শিবপুর ঘাটে দুই মাস আগে একটি জলাধার তৈরি হয়েছে৷ কিন্তু এখনও জলের সংযোগ হয়নি। কাজ শেষ না করেই ঠিকাদার বিল পেয়ে গিয়েছে৷ কাটমানি ছাড়া এটা হতে পারে না।


পঞ্চায়েত প্রধান টুম্পা মণ্ডল জানান, বিষয়টি তাঁর জানা নেই। বিষয়টি তিনি খোঁজ নিয়ে দেখবেন।


বিজেপির জেলা সহ সভাপতি সুকান্ত সিংহ জানান,

২০২২ সালে ওই কাজ হয়েছে৷ সেই সময় পঞ্চায়েত তৃণমূলের দখলে ছিল৷ ওদের পছন্দের ঠিকাদারই কাজ করেছেন৷ তৃণমূলের প্রধান কাজ না করে প্রকল্পের টাকা আত্মসাৎ করার চেষ্টা করেছিল। এখন বিজেপি ক্ষমতায় এসেছে দ্রুত জলাধারের কাজ শেষ হবে।

আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page