top of page

মালদায় রাবণ পুজো! মধ্যরাতে উপচে পড়ল ভিড়

পুরাণ মতে, গ্রেটার নয়ডার বিসরাখেই জন্মগ্রহণ করেছিলেন লঙ্কাধিপতি দশানন। ব্রহ্মার প্রপৌত্র, শিবের একনিষ্ঠ সাধক রাবণ, পৃথিবীর সবচেয়ে বুদ্ধিমান ব্যক্তি। কিন্তু রামায়ণ বর্ণিত কাহিনীতে রাক্ষসকুলের প্রতিনিধি হিসাবে সেখানে বর্ণনা করা হয়েছে রাবণকে। রামচন্দ্রের স্ত্রী সীতাকে অপহরণ করেছিলেন তিনি। তার জেরেই রাম-রাবণের যুদ্ধ। রামায়ণের কাহিনী থেকেই রাবণ সবার কাছে দুষ্ট চরিত্র হিসাবে পরিচিত। সেই থেকে অশুভ শক্তির প্রতীক হিসাবে পরিচিত রাবণ। দশেরা তথা দশমীতে অশুভ শক্তির বিনাশ করতে রাবণ বধের আয়োজন করা হয় দেশ জুড়ে। তবে লঙ্কার অধিপতি পূজিতও হন বেশ কিছু জায়গায়। এমনই একটি জায়গা মালদার চাঁচল।



চাঁচলের পাহাড়পুর এলাকায় ঘটা করে রাবণের পুজোয় মাতেন গ্রামবাসীরা। রীতিমতো পুজো মণ্ডপ তৈরি করে, ঢাক বাজিয়ে আরাধনা করা হয় রাবণের। রাবণের পুজো দেখতে মধ্যরাতে ভিড় জমালেন পাহাড়পুর এলাকার বাসিন্দারা।


পাহাড়পুর এলাকার বাসিন্দা সুব্রত পাণ্ডে বলেন, স্থানীয় বাসিন্দাদের উদ্যোগে আজ রাবণের পুজো হচ্ছে। কারণ, আস্তে আস্তে মানুষ রাবণের কৃতিত্ব ভুলতে বসেছে। রাবণ ছিলেন বীর যোদ্ধা, পণ্ডিত। তবে এমন নয়, রাবণের পুজো করা মানে, রামকে ঘৃণা করা। রামের পুজোর পাশাপাশি এলাকাবাসীরা যোদ্ধা-পণ্ডিত হিসেবে রাবণের পুজো করা হচ্ছে।



উল্লেখ্য, মধ্যপ্রদেশের বিদিশা জেলায় রাবণগ্রামে রয়েছে ভারতের অন্যতম বিখ্যাত রাবণ মন্দির। বিদিশার বাসিন্দারা রাবণের মন্দিরটিকে শুভ মনে করেন। উত্তরপ্রদেশের গ্রেটার নয়ডায়ও রাবণের উপাসনা করা হয়। ওই এলাকার মানুষের কাছে দশেরা শোকের সময়। মধ্যপ্রদেশের মন্দসৌড় শহরেও রাবণের মন্দির রয়েছে। পাশাপাশি লঙ্কার অধিপতি পূজিত হন রাজস্থানের যোধপুরের মন্দোর-রাবণ মন্দিরে, অন্ধ্রপ্রদেশের কাকিনাদা রাবণ মন্দিরেও।




আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Comments

Couldn’t Load Comments
It looks like there was a technical problem. Try reconnecting or refreshing the page.

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page