top of page

তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষ, ব্যাপক বোমাবাজি

দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠল মানিকচক। জমি বিবাদের জেরে ব্যাপক বোমাবাজির অভিযোগ। ভাঙচুর করা হয়েছে বেশ কিছু বাড়িতেও। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে চলছে পুলিশি টহল।


স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মানিকচকের গোপালপুর গ্রামপঞ্চায়েতের চৌকি মীরদাদপুর এলাকায় জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিবাদ চলছে মোহম্মদ সইফুদ্দিন ও নাসির শেখের। সইফুদ্দিন তৃণমূল পরিচালিত মানিকচক পঞ্চায়েত সমিতির খাদ্য কর্মাধ্যক্ষ। নাসির তৃণমূলেরই গোপালপুর অঞ্চল সভাপতি। আজ দুপুরে জমি বিবাদের জেরে দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এলাকায় ব্যাপক বোমাবাজি পাশাপাশি গুলিও চলে বলে অভিযোগ। এলাকায় প্রায় ১০টি বাড়িতেও ভাঙচুর চালানো হয়েছে বলে দাবি স্থানীয় বাসিন্দাদের। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় মানিকচক থানার পুলিশ বাহিনী।


স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, নাসির আর সইফুদ্দিনের মধ্যে জমি নিয়ে দীর্ঘদিনের বিবাদ। ওরা দুজনেই তৃণমূলের। দু’জনের বিবাদের জেরে সাধারণ মানুষকে ভুগতে হচ্ছে। আজ সকাল থেকেই দুপক্ষের লোকজন এলাকায় বোমা-পিস্তল নিয়ে হামলা চালাতে শুরু করে। এলাকায় ব্যাপক বোমাবাজি করা হয়েছে। এলাকার মানুষ এখন আতঙ্কে রয়েছে।



সইফুদ্দিনের দাবি, তিনি দুটি আমবাগান কিনেছেন। গোপালপুর অঞ্চল তৃণমূল সভাপতি ও তাঁর লোকজন ওই জমি দখল করার চেষ্টা করছে। বিষয়টি থানায় জানানো হয়েছে। আজ সকালে বোমা-পিস্তল নিয়ে তাঁদের লোকজনের বাড়িতে হামলা চালায় অঞ্চল তৃণমূল সভাপতির লোকজন। বাড়ি ঘর ভাঙচুর করে। এর আগে ঝামেলা নিয়ে দলীয় প্রতিনিধিদের বিষয়টি জানানো হয়েছিল। তাঁরা বিষয়টি নিয়ে মীমাংসায় বসতে চাইলেও ওরা রাজি হয়নি।





নাসিরের দাবি, আজ সকালে সইফুদ্দিন আর নেপাল চৌধুরির নির্দেশে কিছু লোকজন বোমাবাজি শুরু করে। তাঁদের লোকজনের বাড়ি ভাঙচুর করে। সইফুদ্দিন এলাকায় মাফিয়া বলে পরিচিত। এর আগেও সে জমি বিবাদকে কেন্দ্র করে অপহরণের ঘটনা ঘটিয়েছিল।

Commenti


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page