top of page

এগিয়ে বাম-কংগ্রেস, শাসকদলের সন্ত্রাসের অভিযোগ

বোর্ড গঠনের দৌড়ে এগিয়ে বাম-কংগ্রেস। শাসকদলের দল বদলের খেলা ও সন্ত্রাস করে বোর্ড দখলের হাত থেকে বাঁচতে দলীয় জয়ী প্রার্থীদের গোপন আস্তানা রেখেছে লাল-সবুজ শিবির। সেই গোপন ডেরাতেও শাসকদলের হামলার অভিযোগ। এমনকি জয়ী প্রার্থীদের লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়েছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। গতকাল রাতে ঘটনাটি ঘটেছে হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লকের থানা পাড়া এলাকায়। যদিও সমস্ত অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে শাসকদল।


বাম-কংগ্রেসের দাবি, হরিশ্চন্দ্রপুর ১ পঞ্চায়েত সমিতির ২১টি আসন। বাম-কংগ্রেস জোট ১১টি আসনে জয়লাভ করে বোর্ড গঠন করতে চলেছে। অভিযোগ, পঞ্চায়েত সমিতি নিজেদের দখলে রাখতে গতকাল রাতে শাসকদলের আশ্রিত দুষ্কৃতীরা হরিশ্চন্দ্রপুর ২১ নম্বর আসনের পঞ্চায়েত সমিতির প্রার্থী তহমিনা খাতুনের বাড়িতে হামলা চালায়। বাড়ির সামনে পেয়ে তহমিনা খাতুনের স্বামী আবু কালাম আজাদের মাথায় পিস্তল ধরে মারধর করা হয়। ভয় দেখাতে দুই রাউন্ড গুলিও চালায় দুষ্কৃতীরা।



প্রাক্তন কংগ্রেসি বিধায়ক মোস্তাক আলম বলেন,

“হরিশ্চন্দ্রপুর ১ পঞ্চায়েত সমিতির মোট আসন ২১টি। তারমধ্যে কংগ্রেস ৮টি ও সিপিএম ৩টি আসনে জয়লাভ করেছে। জোটের ভিত্তিতে আমাদের বোর্ড গঠন হবে। গতকাল রাত পৌনে বারোটা নাগাদ শাসকদলের আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তিনটি গাড়ি নিয়ে আমাদের জয়ী প্রার্থীদের অপহরণ করার উদ্দেশ্য নিয়ে হামলা চালায়। আমাদের এক জয়ী প্রার্থীর স্বামীকে মারধর করা হয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে এলে কাউকে গ্রেফতার করেনি।”

আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page