top of page

প্রার্থীর বাড়িতে হামলা, থানা ঘেরাও কংগ্রেসের

পুলিশের মদতে কংগ্রেসি প্রার্থীকে অপহরণের চেষ্টার অভিযোগ তুলেছিল জেলা কংগ্রেস নেতৃত্ব। শাসকদলের লোকজন ওই প্রার্থীদের বাড়িতে ভাঙচুর চালায় বলেও অভিযোগ। দোষীদের দ্রুত গ্রেফতারির দাবিতে আজ মানিকচক থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ কংগ্রেসের নেতাকর্মীদের।


কংগ্রেসের অভিযোগ, গত ১৭ জুন রাতে পুলিশের মদতে কংগ্রেসের দুই গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রার্থীকে গ্রাম থেকে অপহরণের চেষ্টা করে শাসকদল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। গ্রামবাসীরা কোনোমতে দুই প্রার্থীকে অপহরণের হাত থেকে বাঁচান। সেই রাতেই দুষ্কৃতীরা কংগ্রেসের দুই প্রার্থী সহ এলাকার বেশ কয়েকটি বাড়িতে হামলা চালায়। ব্যাপক ভাঙচুর চালানো হয় ওই এলাকায়। ঘটনার পর থেকে কংগ্রেসের দুই প্রার্থীর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। যদিও এই ঘটনা নিয়ে পুলিশের তরফে জানানো হয়, বেআইনি অস্ত্র মজুত রাখার অভিযোগে পুলিশ বালুটোলা গ্রাম থেকে এক ব্যক্তিকে ধরে থানায় নিয়ে আসছিল৷ স্থানীয় লোকজন পুলিশের হাত থেকে ওই ব্যক্তিকে ছিনিয়ে নেয়৷ পরে সম্ভবত এনিয়ে দুই রাজনৈতিক দলের মধ্যে উত্তেজনা তৈরি হয়। আজ দোষীদের শাস্তির দাবিতে সাংসদ তথা জেলা কংগ্রেসের সভাপতি আবু হাসেম খান চৌধুরীর নেতৃত্বে মানিকচক থানা ঘেরাও করে কংগ্রেস।



জেলা কংগ্রেসের সহ সভাপতি তথা মানিকচকের প্রাক্তন বিধায়ক মোত্তাকিন আলম বলেন,

গত ১৭ জুন রাতে কংগ্রেস প্রার্থী তাবজুল ও সালমা জাহানকে অপহরণ করার চেষ্টা করা হচ্ছিল৷ তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা প্রার্থীদের বাড়ি ভাঙচুর করে৷ এই ঘটনায় পুলিশ কংগ্রেসের এক কর্মী সাইফুদ্দিনকে গ্রেফতার করেছে৷ কেন পুলিশ তাঁকে গ্রেফতার করল। যারা প্রার্থীদের উপর হামলা করেছে, বাড়ি ভাঙচুর করেছে, তাদের পুলিশ গ্রেফতার করুক৷ কংগ্রেস শাসকদলের জবাব দিতে প্রস্তুত আছে। তৃণমূল যদি ভাবে, এবারও ওরা গত পঞ্চায়েত নির্বাচনের পুনরাবৃত্তি করবে, মানুষ এবার সেটা হতে দেবে না৷

আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Comentários


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page