top of page

সুস্থ সংসারের দাবীতে পুলিশের দ্বারস্থ নববধূ

বিয়ের তিন দিনের মাথায় স্ত্রীকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল স্বামীর বিরুদ্ধে। এনিয়ে গ্রামে সালিশি সভাও বসে। তবে কোনো ফল মেলেনি। উলটে অভিযুক্ত স্বামী গ্রামবাসীদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করে। বাধ্য হয়ে বুধবার ওই মহিলাকে নিয়ে ইংরেজবাজার মহিলা থানায় হাজির হন গ্রামবাসীরা।



নির্যাতিত নববধূর নাম লিপি পোদ্দার। বাড়ি মিলকি পঞ্চায়েতের মাদিয়াহাট মোড়ে। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বিনোদপুর পঞ্চায়েতের বড়ো গোসাইপুর গ্রামের বাসিন্দা মলয় মণ্ডলের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল লিপিদেবীর। মাস ছয়েক আগে গ্রামবাসীরা তাঁদের ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখতে পেয়ে ধরে বিয়ে দিয়ে দেয়। বিয়ের তিন দিনের মাথায় লিপিদেবীকে বাবার বাড়িতে রেখে আসে মলয়। তিনমাস পেরিয়ে গেলেও লিপিদেবীকে বাড়িতে নিয়ে আর আসেনি মলয়। অভিযোগ, নিজেই লিপিদেবী স্বামীর বাড়িতে গেলে স্বামী সহ শ্বশুর-শাশুড়ি তাঁকে মারধর করে। এনিয়ে গ্রামে বেশ কয়েকবার সালিশি সভাও বসে।


কয়েকদিন আগে ফের সালিশি ডাকা হলে মলয়ের পরিবারের লোকজন ১৫ জন গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলায় মিলকি ফাঁড়িতে অভিযোগ দায়ের করে। বাধ্য হয়ে গ্রামবাসীরা আজ ওই মহিলাকে নিয়ে ইংরেজবাজার মহিলা থানায় অভিযুক্ত স্বামী সহ পরিবারের লোকজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।


প্রতিদিন মালদার টাটকা নিউজ হোয়াটস্ অ্যাপে পেতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page