top of page

নিখোঁজ নাবালিকার গলা কাটা দেহ উদ্ধার, অভিযুক্তের বাড়ি ভাঙচুর

নিখোঁজ নাবালিকার গলা কাটা দেহ উদ্ধারের ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য শহর জুড়ে৷ অভিযুক্ত যুবকের বাড়িঘরে ভাঙচুর চালিয়ে বাইরে জিনিসপত্র এনে পুড়িয়ে দেয় ক্ষিপ্ত জনতা বলে অভিযোগ৷ নিগৃহীত হতে হয় সংবাদমাধ্যমকেও৷ গোটা ঘটনা নিয়ে বেশ উত্তেজিত পরিস্থিতি রয়েছে৷


উল্লেখ্য, গত ২৯ জানুয়ারি সন্ধেয় বালুচর এলাকার সৃষ্টি কেশরির (১১) নিখোঁজ হওয়ার অভিযোগ ওঠে৷ পরিবারের তরফে ইংরেজবাজার থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়৷ ঘটনার তদন্তে নেমে সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে পুলিশ জানতে পারে এই নাবালিকা একটি মোটরবাইকে বাড়ির সামনে থেকে চলে যায়৷ সিসি ক্যামেরার ফুটেজ অনুযায়ী পুলিশ এক যুবককে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করতে থাকে৷ গতকাল গভীর রাতে আমবাজার এলাকা থেকে ওই নাবালিকার গলা কাটা দেহ উদ্ধার হয়৷ প্রায় ৫০ মিটার দূরে একটি বিল্ডিংয়ের ছাদ থেকে উদ্ধার হয় মাথা৷ নিমেষে এই খবর চাউর হয়ে যায়৷ ক্ষিপ্ত স্থানীয় লোকজন ইংরেজবাজার থানার সামনে ছুটে এসে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে৷ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে থানায় ছুটে আসেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার৷ স্থানীয় সূত্রে জানা যাচ্ছে, অভিযুক্ত যুবক মৃত নাবালিকার আত্মীয়৷



এদিকে, আজ সকালে ক্ষিপ্ত জনতা অভিযুক্ত যুবকের বাড়িঘরে ভাঙচুর চালায়৷ বাড়ির সমস্ত জিনিসপত্র বাইরে এনে আগুন ধরিয়ে দেয় বলে অভিযোগ৷ খবর সংগ্রহ করতে নিয়ে নিগৃহীত হতে হয় সংবাদমাধ্যমকেও৷ গোটা ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রবল উত্তেজনা রয়েছে মালদা শহর জুড়ে৷

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page