top of page

জমিতে রক্তের দাগ, নিখোঁজকে ঘিরে দানা বেঁধেছে রহস্য

চাষের জমিতে গিয়ে নিখোঁজ চাষি। জমিতে রক্তের দাগ, ঘটনার পর থেকেই নিখোঁজ এক ছেলে সব মিলিয়ে রহস্যের দানা বেঁধেছে হরিশ্চন্দ্রপুরের তালগাছি এলাকায়। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।


হরিশ্চন্দ্রপুরের তালগাছি এলাকার বাসিন্দা আনিসুর রহমান গতকাল রাত ১০টায় ধানের খেতে জল দিতে বাড়ি থেকে বের হন। ঘণ্টা দুয়েক বাদে ফেরার কথা থাকলেও সকাল পর্যন্ত তিনি বাড়ি না ফেরায় শুরু হয় খোঁজ। পাম্পসেটের কাছে গিয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা দেখেন, ঘটনাস্থলে রক্তের দাগ, রয়েছে ধস্তাধস্তির চিহ্নও। এরপরেই খুনের সন্দেহ করছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।



জানা গিয়েছে, আনিসুরের বড়ো ছেলে মানসিক ভারসাম্যহীন। বাকি তিন ছেলে ভিনরাজ্যে শ্রমিকের কাজ করেন। মেজো ছেলে হায়াত আলাদা থাকে। ছোটো ছেলে বাবলু বাবা-মায়ের সঙ্গেই থাকেন। অভিযোগ, আনিসুর সাহেব বাবলুকে বেশি সম্পত্তি দিয়ে দিচ্ছেন বলে মাস দুয়েক আগে হায়াতের সঙ্গে বাবলুর চরম বিবাদ হয়। হায়াত গ্রেফতারও হয়। জামিন পেয়ে ওড়িশায় গেলেও চারদিন আগে হায়াত বাড়ি ফিরে আসে। এদিন সকালেই ফের বাড়ি ছেড়ে গা ঢাকা দিয়েছে হায়াত।


নিখোঁজ চাষির ভাই বেলাল হোসেন বলেন, গতকাল দাদা জমিতে জল দিতে গিয়েছিল। তারপর আর ফেরেনি। সকাল থেকে ওর বড়ো ছেলেও গা ঢাকা দিয়েছে। ভাইয়ের দুই ছেলের মধ্যে জমি নিয়ে একটা বিবাদ হয়েছিল। সেই বিবাদের জেরে কিছু হল কিনা এখনও সঠিক ভাবে বোঝা যাচ্ছে না। তবে জমিতে রক্তের দাগ এবং ধস্তাধস্তির চিহ্ন পাওয়া গেছে।




হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ জানিয়েছে, নিখোঁজ চাষির খোঁজে তল্লাশি শুরুর পাশাপাশি ঘটনার তদন্তও শুরু করা হয়েছে। তবে এই ঘটনায় এখনই কিছু বলা সম্ভব নয়।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Comments


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page