top of page

খুনের অভিযোগে অবরোধ, গ্রামবাসীদের বিরুদ্ধে মামলা পুলিশের

পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছিল এক ব্যক্তির। যদিও পরিবারের অভিযোগ ছিল, দুর্ঘটনা নয়, পরিকল্পনা করে খুন করা হয়েছে ওই ব্যক্তিকে। ঘটনার প্রকৃত তদন্তের দাবিতে মৃতদেহ রেখে পথ অবরোধ করেছিলেন পরিবারের লোকজন সহ এলাকার মানুষজন। সেই ঘটনায় গ্রামের দুশো জনের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে পুলিশ। মামলার খরচ জোগাড় করতে সাদা কাপড়েই বাড়ি বাড়ি চাঁদা সংগ্রহে নেমেছে মৃতের পরিবারের লোকজন।


চাঁদা সংগ্রহে নেমেছে মৃতের পরিবারের লোকজন। সংবাদচিত্র।

উল্লেখ্য, গত ৩ এপ্রিল হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লকের মহেন্দ্রপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের মহেন্দ্রপুর গ্রামে দুর্ঘটনাটি ঘটে৷ মোটরবাইকের ধাক্কায় ওই গ্রামের বাসিন্দা আশুতোষ দাসের মৃত্যু হয়। পরিবারের তরফে অভিযোগ ওঠে, পরিকল্পনা মাফিক খুন করা হয়েছে। ঘাতক বাইক আরোহী শামিম আখতারকে পুলিশের হাতে তুলে দেন স্থানীয় বাসিন্দারা। কিন্তু পুলিশ তাকে ছেড়ে দেওয়ায় মহেন্দ্রপুর বাস স্ট্যান্ডে মৃতদেহ রাস্তায় রেখে অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন পরিবারের লোকজন সহ গোটা গ্রাম। সেই ঘটনায় অবরোধকারীদের বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিতভাবে মামলা রুজু করেছে পুলিশ। মামলা রুজু করা হয়েছে তৃণমূলের ছাত্র ১ নম্বর ব্লক সভাপতি বিমান ঝা, তৃণমূল ছাত্র পরিষদের জেলা সাধারণ সম্পাদক কৃষ্ণ মহালদার, শাসকদলের স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য মোজাহিদের বিরুদ্ধেও৷ গ্রামবাসীদের বেইল করাতে সাদা পোশাকেই চাঁদা সংগ্রহে নেমেছে পরিবারের লোকজন।


আশুতোষবাবুর মেয়ে দেবাদৃতা জানান,

যাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত তাদের ছেড়ে দিয়ে বিক্ষোভকারীদের নামে মামলা করল পুলিশ। এলাকার লোকজন পাশে দাঁড়াতে গিয়ে পুলিশি হয়রানির শিকার হচ্ছেন। তাই তাঁদের জামিনের অর্থ জোগাড় করতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে চাঁদা সংগ্রহ করছি।

তৃণমূল ছাত্র পরিষদের জেলা সাধারণ সম্পাদক কৃষ্ণ মহালদার জানান, পুলিশের এই ভূমিকা অত্যন্ত নিন্দনীয়৷ তবে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য পুলিশ মামলা দিলেও গ্রামের কেউ পিছু হটবে না৷


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page