top of page

বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের সময় নিয়ে খুশি নয় জেলার বণিকমহল

আগামী ৩০ ডিসেম্বর উদ্বোধন হচ্ছে বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের। হাওড়া-এনজেপি রুটের এই ট্রেনে বোলপুর ও মালদায় স্টপেজ রয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই খুশির হাওয়া জেলাবাসীর মধ্যে। তবে রেল কর্তৃপক্ষের তরফে এই ট্রেনের যে টাইমটেবিল প্রকাশ করা হয়েছে তাতে খুশি নয় জেলার ব্যবসায়ী মহল।


রেল কর্তৃপক্ষের তরফে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী আপ বন্দে ভারত এক্সপ্রেস হাওড়া থেকে ছাড়বে ভোর ৫টা ৫০ মিনিটে। মালদায় সেই ট্রেন এসে পৌঁছবে সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে। এনজেপিতে ট্রেনটি পৌঁছবে দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে। অন্যদিকে, ডাউন বন্দে ভারত এক্সপ্রেস এনজেপি থেকে দুপুর ২টো ৫০ মিনিটে রওনা দিয়ে মালদায় পৌঁছবে সন্ধে ৫টা ৫৫ মিনিটে। হাওড়ায় পৌঁছবে রাত ১০টা ৫০ মিনিটে। বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের এই সময়সূচি নিয়ে খুশি নয় জেলার ব্যবসায়ীরা।


মালদা মার্চেন্ট চেম্বার অফ কমার্সের সম্পাদক জয়ন্ত কুণ্ডু জানান,

৩০ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নতুন এই ট্রেনের উদ্বোধন করবেন৷ শিলিগুড়ি যাওয়ার ক্ষেত্রে মালদাবাসীর কিছুটা সুবিধে হলেও রাত ১১টায় কলকাতায় পৌঁছে মালদার ব্যবসায়ীদের অসুবিধের মধ্যে পড়তে হবে৷ ট্রেনটির টাইমটেবিল পরিবর্তন করে, সন্ধে সাতটার মধ্যে হাওড়া পৌঁছনোর ব্যবস্থা করার আবেদন জানানো হচ্ছে৷ পাশাপাশি বোলপুরের বদলে বর্ধমানে এই ট্রেনের স্টপেজের দাবি জানিয়ে রেলমন্ত্রীর কাছে চেম্বার অব কমার্সের পক্ষ থেকে চিঠি পাঠানো হচ্ছে।


ভারতের ষষ্ঠ বন্দে ভারত এক্সপ্রেস হিসাবে নতুন এই ট্রেন পাচ্ছে বাংলা। ট্রেনের সর্বোচ্চ গতি ঘণ্টায় ১৮০ কিলোমিটার হলেও হাওড়া থেকে এনজেপি পর্যন্ত রেল ট্র্যাকে এই গতিতে পৌঁছনো যাবে না বলে রেল সূত্রে জানা গিয়েছে। অর্থাৎ বন্দে ভারত এক্সপ্রেস হলেও এই রাজ্যে তার গতি থাকবে ঘণ্টায় ৭০ কিলোমিটারের আশেপাশে৷ এখানেই প্রশ্ন উঠছে, বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের এনজেপি থেকে হাওড়া পৌঁছতে সাড়ে তিন ঘণ্টা সময় লাগার কথা। কিন্তু সেখানে আট ঘণ্টায় হাওড়া পৌঁছনোর জন্য যাত্রীরা এত বেশি ভাড়া দেবেন কেন?




আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Komentar


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page