top of page

‘বন্যাত্রানের কোটি-কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে’, ভাইরাল অডিও ক্লিপে অস্বস্তিতে তৃণমূল

ভোটের আগের একটি অডিও ক্লিপ ভাইরাল হতেই অস্বস্তিতে তৃণমূল। অভিযোগ, সেই অডিও ক্লিপে হরিশ্চন্দ্রপুর বিধানসভার বিধায়ক তজমূল হোসেনের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন জেলাপরিষদ সদস্য মমতাজ বেগমের স্বামী, তৃণমূল নেতা আমিনুল হক। যদিও সেই অডিও ক্লিপের সত্যতা যাচাই করেনি আমাদের মালদা।


অডিও ক্লিপে শোনা যাচ্ছে হরিশ্চন্দ্রপুরের তৃণমূলের নেতা এক তৃণমূল কর্মীকে বলছেন, এলাকায় যাকে তৃণমূল প্রার্থী করা হয়েছে সে চামার। একজন ক্রিমিনাল। বন্যাত্রানের কোটি-কোটি টাকা সে আত্মসাৎ করেছে। বাংলা আবাস যোজনার যে ২০০-২৫০ কোটি টাকা আসবে তাও আত্মসাৎ করবে। একারণেই তিনি ভোটের লড়াইয়ে থাকতে চান না। আড়ালেই আছেন।


এই অডিও ক্লিপ ভাইরাল হতেই অস্বস্তিতে পড়েছে তৃণমূল নেতৃত্ব। যদিও এই অডিও ক্লিপ ষড়যন্ত্র বলে দাবি করেছেন আমিনুল হক। তিনি বলেন, এই সব অভিযোগ ভিত্তিহীন। অডিও ক্লিপের গলা তাঁর নয়। তাঁর স্ত্রী জেলাপরিষদের সদস্য। স্ত্রীর প্রতিনিধিরূপে তিনি অঞ্চলে যেভাবে কাজ করেছি, এরকম কাজ মালদা জেলার কোন প্রতিনিধি করেনি।



তৃণমূলের জেলা সাধারণ সম্পাদক বুলবুল খান বলেন, "ভোটের আগেই এই অডিও ক্লিপ আমরা পেয়েছিলাম। ক্লিপটি প্রশান্ত কিশোরের টিমকে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু ভোটের আগে বিষয়টি প্রকাশ্যে আনা হয়নি। আমাদের প্রত্যেকটা কেন্দ্রে যেই প্রার্থী হোক, মানুষ মমতা ব্যানার্জিকে প্রার্থী ভেবে ভোট দিয়েছে। বিষয়টি নিয়ে রাজ্য নেতৃত্ব যা পদক্ষেপ নেওয়ার নেবে।




বিজেপির জেলা সম্পাদক কিষান কেডিয়া কটাক্ষের সুরে বলেন, এই অডিও ক্লিপটা থেকে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব ফের প্রকাশ্যে আসছে। এই দলটাই শুধু গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের আর কাটমানির। মানুষ বুঝতে পারবে এদের ক্ষমতায় এনে কি ভুল করেছে। এসব ঘটনা থেকেই মানুষ শিক্ষা নেবে।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Comentários


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page