top of page

থানার সামনে গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা

মদ্যপ অবস্থায় থানার সামনেই গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে আত্মহত্যার চেষ্টা। চিৎকার শুনে থানা থেকে ছুটে এসে কম্বল জড়িয়ে আগুন নেভালেন পুলিশকর্মীরা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই ব্যক্তিকে হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। দাম্পত্য কলহের জেরেই এই ঘটনা বলে অনুমান পুলিশের। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে হরিশ্চন্দ্রপুর এলাকায়।


পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, থানার উল্টোদিকে হাটখোলা। হাটখোলার পিছনেই বাড়ি শিবু চক্রবর্তীর। থানার সামনে ভ্যানে ডাব বিক্রি করেন তিনি। পাশেই ছাতুর সরবত বিক্রি করেন তাঁর স্ত্রী ফুলন সাহা চক্রবর্তী। অভিযোগ, বাড়িতে তো বটেই, বাজারেও স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কলহ লেগে থাকত। আজ দুপুরে হঠাৎ শিবুবাবু থানার উল্টো দিকে দুর্গামণ্ডপের সামনে গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন ধরায়। চিৎকারে থানা থেকে বেরিয়ে গায়ে কম্বল জড়িয়ে আগুন নেভান খোদ আইসি। হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রামীণ হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, শিবুবাবুর শরীরের প্রায় ৭৫ শতাংশ পুড়ে গিয়েছে। তাঁকে মালদা মেডিকেল কলেজে রেফার করা হয়েছে।



হরিশ্চন্দ্রপুরের আইসি সঞ্জয় কুমার দাস বলেন, এখনও কোনও অভিযোগ জমা পড়েনি। দাম্পত্য কলহের জেরেই ঘটনাটি ঘটেছে। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।




আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Comments


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page