top of page

বেআইনিভাবে মাটি কাটার অভিযোগ, ক্ষিপ্ত স্থানীয় বাসিন্দারা

বেআইনিভাবে রাজ্য সরকারের জমি থেকে মাটি কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠল জাতীয় সড়ক নির্মাণে বরাতপ্রাপ্ত সংস্থার বিরুদ্ধে। যদিও ঠিকাদার সংস্থার দাবি, অনুমতি নিয়ে নিয়ম মেনে মাটি কাটা হচ্ছে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক বিতর্ক দেখা দিয়েছে রতুয়া-১ ব্লকে। বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছে ভূমি ও ভূমি সংস্কার দফতর।


রতুয়া থেকে বিহারের পূর্ণিয়া পর্যন্ত জাতীয় সড়ক নির্মাণের কাজ চলছে। এই জাতীয় সড়কের খানিক অংশ নির্মাণের বরাত পেয়েছে রায়গঞ্জের একটি সংস্থা। অভিযোগ, এই ঠিকাদার সংস্থা পূর্ত দফতরের জায়গা থেকে অবৈধভাবে মাটি কেটে নিচ্ছে। সেই মাটি জাতীয় সড়ক নির্মাণের কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে। স্থানীয় বাসিন্দা অশোক ঘোষ বলেন, “১৩১ এ জাতীয় সড়ক নির্মাণের বরাত পাওয়া ঠিকাদার সংস্থা পূর্ত দপ্তরের জমি থেকে মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছে৷ ৫ ফুট গর্ত করে মাটি কেটে নেওয়ার ফলে রাস্তার পাশে থাকা জমি থেকে ফসল কেটে নিয়ে যাওয়ার কোনো উপায় থাকছে না। গঙ্গা ভাঙনে বাড়ি ঘর হারিয়ে অনেকেই এই জমিতে বাড়ি করছেন। তাদেরও এলাকা থেকে বেরোনোর উপায় থাকবে না।”


আরেক বাসিন্দা অতুল ঘোষ জানান,

ঠিকাদার সংস্থার অবৈধভাবে মাটি কাটছে। স্থানীয় বিধায়ক যাতায়াতের পথে সমস্ত ঘটনা দেখতে পাচ্ছেন। কিন্তু তিনিও কিছু বলছেন না। প্রতিবাদ করলে ঠিকাদার সংস্থার লোকজন হুমকি দিচ্ছে। এলাকার সকলেরই দাবি বেআইনিভাবে মাটি কাটা বন্ধ করা হোক।


যদিও ওই ঠিকাদার সংস্থার দাবি, সবরকম আইন মেনে এবং অনুমতি নিয়েই মাটি কাটা হচ্ছে। নির্মীয়মাণ জাতীয় সড়কের নকশায় রাস্তার পাশে নয়ানজুলি তৈরির কথা বলা রয়েছে৷ মাটি কেটে সেখানে নয়ানজুলি বানানো হচ্ছে। সেই মাটি জাতীয় সড়কের কাজেই ব্যবহার হচ্ছে।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page