top of page

পঞ্চায়েতে কাটমানি নিয়ে কাজিগ্রামে তৃণমূল বিজেপি বচসা, গ্রেফতার এক

কাজিগ্রাম গ্রামপঞ্চায়েতে তৃণমূল বিজেপি বচসার ঘটনায় বিজেপি পঞ্চায়েত সদস্যের স্বামীকে গ্রেফতার করল ইংরেজবাজার থানার পুলিশ। বৃহস্পতিবার ধৃত ব্যক্তিকে মালদা জেলা আদালতে পেশ করা হয়েছে।


উল্লেখ্য, সোমবার বিকেলে ইংরেজবাজারের কাজিগ্রাম গ্রাম পঞ্চায়েতের কার্যালয়ে তৃণমূল বিজেপি’র বিবাদে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। তৃণমূল ও বিজেপি উভয়পক্ষ একে অপরের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ বিজেপি সদস্যের স্বামীকে গ্রেফতার করেছে।



ঠিকাদারিতে কাটমানি চেয়ে হুমকির অভিযোগ কাজিগ্রামে, গ্রেফতার এক


উপ-প্রধান মন্টু ইসলামের অভিযোগ, সোমবার বিকেলে হঠাৎ বিজেপি’র পঞ্চায়েত সদস্য অনিমা মণ্ডলের স্বামী প্রদীপ মণ্ডল ও তার দলবল ঢুকে যায়। তারা ঠিকাদারি কাজের টাকা চেয়ে হুমকি দিতে থাকে। পঞ্চায়েতের কাজের কাটমানি না দিলে গুলি করে খুন করার হুমকিও দেয় তারা। প্রতিবাদ করতেই বিজেপি নেতা প্রদীপ মণ্ডল তাঁকে ও তৃণমূলের কর্মীদের মারধর করতে শুরু করে। চিৎকার-চ্যাঁচামেচিতে স্থানীয় লোকজন ছুটে এলে পরিস্থিতি বেগতিক দেখে বিজেপি’র লোকজন পঞ্চায়েত অফিস ছেড়ে পালায়। সেই সময় ওদের হাত থেকে একটি পাইপগান পড়ে যায়। পুলিশ সেই পাইপগান উদ্ধার করেছে। ঘটনাপ্রসঙ্গে ইংরেজবাজার থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল।


এই ঘটনায় বিজেপি'র জেলা সভাপতি গোবিন্দ মণ্ডল জানান, পুলিশ শাসকদলের নির্দেশে বিজেপি কর্মীকে গ্রেফতার করেছে। বিজেপি সদস্যরা গ্রাম পঞ্চায়েত কার্যালয়ে মিটিংয়ে গিয়েছিল। সেই সময় বিজেপি সদস্যের প্রশ্নের জবাব না দিতে পারায় তৃণমূলের লোকজন বিজেপি সদস্যদের মারধর শুরু করে। অনিমা মণ্ডলকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেন তাঁর স্বামী। সেই সময় তাঁকেও মারধর করা হয়। পরে তাঁকে মালদা মেডিকেলে ভরতি করা হয়েছে। ইংরেজবাজার থানায় অভিযোগ দায়ের করা হলেও পুলিশ কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। উলটে বিজেপি সদস্যের স্বামীকে গ্রেফতার করেছে।

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page