top of page

হাটের জমি দখলের অভিযোগ মাফিয়াদের বিরুদ্ধে, সরব ব্যবসায়ীরা

হাটের জমি দখল করে বেআইনিভাবে বিক্রি করে দেওয়ার অভিযোগ জমি মাফিয়াদের বিরুদ্ধে। জমি বিক্রি হতেই সেখানে বাড়িও তৈরি হয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ। আর এতেই সমস্যায় পড়ছেন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা। ঘটনাটি মালদার সামসীর রতনপুরের। ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোর।


জানা গিয়েছে, সামসীর রতনপুরের এই হাট ১০০ বছরেরও পুরোনো। প্রতি সপ্তাহে বৃহস্পতিবার করে এই হাট বসে। হাটে প্রায় তিন-চার হাজার ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা ব্যবসা করে থাকেন। সামসীর রতনপুর হাটের ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, বেআইনিভাবে হাটের জমি বিক্রি করে দিচ্ছে জমি মাফিয়ারা। সেই জমি বিক্রি হতেই ক্রেতারা বাড়ি করে নিচ্ছে। এতে হাটের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা সমস্যায় পড়েছেন। হাট ব্যবসায়ীর পক্ষ থেকে ব্লক প্রশাসন, জেলা প্রশাসন, এমনকি নবান্নে চিফ সেক্রেটারি, ডেপুটি সেক্রেটারির দফতরেও বিষয়টি জানানো হয়েছে। কিন্তু তারপরেও কোনও কাজ হয়নি।


হাট ব্যবসায়ী সংগঠনের সম্পাদক শফিকুল আলম জানান,

রতনপুর হাট ১৪.৪৭ একর জমি নিয়ে। জমি মাফিয়ারা হাটের জমি দখল করে বিক্রি করে দিচ্ছে। এই বিষয়ে প্রশাসন থেকে শুরু করে নবান্নতেও লিখিত আকারে জানানো হয়েছে। জমি মাফিয়ারা পুলিশ প্রশাসন ও সরকারি দফতরের সহযোগিতায় এই কাজগুলি করছে। জমি মাফিয়ারা রাজনৈতিক দলগুলির ছত্রছায়ায় রয়েছে। সেই কারণে ব্যবসায়ীরাও কিছু করতে পারছে না। অবিলম্বে হাটের জমি বিক্রি বন্ধ করার দাবি জানাচ্ছি।

প্রতীকী ছবি

বিজেপির দক্ষিণ মালদা সাংগঠনিক জেলা সম্পাদক অম্লান ভাদুড়ী জানান, শাসকদলের মদতে হাটের জমির রেকর্ড বদল হয়ে যাচ্ছে। শুধু সামসী নয়, জেলা জুড়ে এভাবেই জমি বেদখল হয়ে যাচ্ছে। এই ঘটনায় বিএলআরও দফতরের কর্মীদের একাংশ যুক্ত রয়েছে।


রাজ্যের শেষ প্রতিমন্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন জানান, বিষয়টি আমার নজরে এসেছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করার জন্য জেলাশাসকের সঙ্গে কথা হয়েছে।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page