top of page

পঞ্চায়েতে অনাস্থা আনতে সদস্যদের অপহরণের অভিযোগ

গ্রামপঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনতে দলেরই ১১ জন সদস্যকে অপহরণের অভিযোগ উঠল তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে হরিশ্চন্দ্রপুর-২ ব্লকের বিডিও অফিস চত্বরে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।


তৃণমূল পরিচালিত দৌলতনগর গ্রামপঞ্চায়েতের মোট ২০টি আসন রয়েছে। জানা গিয়েছে, গ্রামপঞ্চায়েত প্রধান নজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ তুলে অনাস্থার ডাক দেন ১২ জন সদস্য। আজ ওই সদস্যদের সই ভেরিফিকেশনের দিন ছিল। আজ সই ভেরিফিকেশনের জন্য ব্লক অফিসে গিয়েছিলেন ওই ১২ জন সদস্য। অভিযোগ, সেই সময় হরিশ্চন্দ্রপুর-২ নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি জুবেদা বিবির স্বামী তথা এলাকার যুব তৃণমূল নেতা আশরাফুল হকের নেতৃত্বে প্রায় ৫০-৬০ জনের একটি সশস্ত্র দল ব্লক চত্বরে আসে। ওই ১২ জন পঞ্চায়েত সদস্যকে অপহরণের করে দুষ্কৃতীরা। দুই পক্ষের হাতাহাতিতে এলাকায় ধুন্ধুমার পরিস্থিতি তৈরি হয়। দুষ্কৃতীরা ১১ জনকে অপহরণ করে এলাকা থেকে পালিয়ে যায়। ঘটনার পরেই অপহৃত সদস্যদের সমর্থকরা লোহার ব্রিজে অবরোধ শুরু করে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসতে গিয়ে অবরোধের মুখে পড়ে পুলিশও। পরে বিশাল পুলিশবাহিনী ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।



বিষয়টি কার্যত মেনে নিয়েছেন হরিশ্চন্দ্রপুর-২ ব্লকের বিডিও বিজয় গিরি। তিনি জানান, সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গিয়েছে প্রায় ৫০-৬০ জন এসে ওই সদস্যদের বের করে নিয়ে গিয়েছে। বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়েছে।




আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

תגובות


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page