top of page

তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে আহত ৪, উত্তেজনা মালদা শহরে

শ্রমিক ইউনিয়নে ঢোকাকে কেন্দ্র করে মালদা শহরে তৃণমূল ও বিজেপির সংঘর্ষ। সংঘর্ষে আহত হয়েছেন দুই পক্ষের বেশ কয়েকজন। আহতদের মধ্যে চারজন মালদা মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন। এই ঘটনা নিয়ে একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করতে চলেছে তৃণমূল ও বিজেপি। ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে মালদা শহরে।

জানা গিয়েছে, গতকাল সন্ধে থেকে শ্রমিক সংগঠনে ঢোকা ও কাজ পাওয়া নিয়ে গণ্ডগোল চলছিল। আজ দুপুরে এনিয়ে ফের বিজেপি ও তৃণমূলের মধ্যে বিবাদ বাঁধে। নিমেষে সেই বিবাদ সংঘর্ষের রূপ নেয়। সংঘর্ষে আহত হন দুই পক্ষের বেশ কয়েকজন। ঘটনার জেরে মালদা-পুখুরিয়া রাজ্য সড়কে বিক্ষোভ দেখান শ্রমিকরা।


4-injured-in-Trinamool-BJP-clash-tension-in-Malda-town
সংঘর্ষে আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন। প্রতীকী ছবি।

ঘটনাপ্রসঙ্গে বিজেপি যুব মোর্চার (দক্ষিণ) সভাপতি শুভঙ্কর চম্পটি জানান, যুব মোর্চার (উত্তর) সাধারণ সম্পাদক অসীম সরকার ও ইংরেজবাজার পুরসভার ২১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সুতপা মুখার্জি আজ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করতে ডিআরএমের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন৷ সেই সময় পুরসভার ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূলি কাউন্সিলর গৌতম দাসের নেতৃত্বে দুষ্কৃতীরা অসীমবাবুদের আক্রমণ করে৷ এই ঘটনায় অসীমবাবু ও সুতপাদেবী আক্রান্ত হয়েছেন। রেলের টেন্ডার দখল করতেই তৃণমূল এই ঘটনা ঘটিয়েছে। এনিয়ে বিজেপি যুব মোর্চার তরফে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হবে।

তৃণমূলি কাউন্সিলর গৌতম দাস জানান,

আজ দুপুরে হঠাৎ বিজেপির কিছু ছেলেকে ইট নিয়ে রেলের শ্রমিকদের পিছনে ধাওয়া করতে দেখি।

তিনি বলেন, পরে জানতে পারি, গায়ের জোরে রেল ওয়ার্কারদের ইউনিয়নের শ্রমিক সদস্যদের সরিয়ে নিজেদের লোককে কাজে ঢোকানোর চেষ্টা করছিল বিজেপি। কিন্তু ইউনিয়নের সদস্যরা জানিয়েছিলেন, ইউনিয়নের বসে থাকা সদস্যরা কাজ পাওয়ার পর বাইরের লোককে কাজ দেওয়া যাবে৷ এতেই ওরা ক্ষিপ্ত হয়ে বাইরে থেকে লোক নিয়ে এসে শ্রমিকদের উপর হামলা চালায়৷ এই ঘটনায় তৃণমূলের দুজন আহত হয়েছেন। এনিয়ে তৃণমূলের তরফে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হবে।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page