top of page

অবৈধভাবে কাটা হল ২৫০টি গাছ, চাঞ্চল্য হরিশ্চন্দ্রপুরে

অবৈধভাবে বাগান থেকে প্রায় ২৫০টি গাছ কেটে নেওয়ার অভিযোগ এক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে। ঘটনা নিয়ে বন দফতরের প্রতি ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন বন ও ভূমি কর্মাধ্যক্ষ। বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন বিডিও। হরিশ্চন্দ্রপুরের কিরণবালা বালিকা বিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী একটি বাগানের ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকা জুড়ে।


স্থানীয় এক পরিবেশপ্রেমী দেবব্রত পাল বলেন,

কী ভাবে এতগুলো কাজ কেটে নেওয়া হল? কারা এই গাছ কাটার অনুমতি দিল? যেভাবে গাছগুলো কেটে নেওয়া হয়েছে দেখে চোখে জল আসছে। করোনাকালে মানুষ অক্সিজেনের অভাবে ভুগেছে। এই গাছ কাটার ফল ভুগতে হবে এলাকাবাসীকে। প্রশাসন যদি গাছ কাটা রুখতে না পারে তবে সরকারের পক্ষ থেকে গাছ লাগানো নিয়ে এত প্রচার করার কোনও মানে হয় না। আমরা কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি তুলছি।

হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লকের বন ও ভূমি কর্মাধ্যক্ষ আদিত্য মিশ্র বলেন, বিষয়টি বৈধ না অবৈধ তাঁর জানা নেই। ঘটনাটি এখনই তিনি শুনলেন। এর আগেও এই ভাবে গাছ কাটা হয়েছে। তিনি জানেন, নিয়ম মেনে পাঁচটির বেশি গাছ কাটা যায় না। এই নিয়ে জেলাশাসককে লিখিত ভাবে অভিযোগ জানাবেন তিনি।



বিডিও অনির্বাণ বসু বলেন, এই ভাবে গাছ কাটা যায় না। পাঁচটির বেশি গাছ একসঙ্গে কাটা যায় না আইন অনুযায়ী। একটি গাছ কাটলে পাঁচটি গাছ লাগাতে হয়। তাও জনস্বার্থে সরকারি কোনও কাজের প্রয়োজন পড়লে গাছ কাটা হয়। বিষয়টি খতিয়ে দেখে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।




আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Comments


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page