top of page

চিকিৎসার দাবিতে মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ এইচআইভি রোগী

চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ উঠল মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে। এইচআইভি পজিটিভ থাকায় ওই রোগীর চিকিৎসা করছেন না চিকিৎসকরা বলে অভিযোগ। চিকিৎসার দাবিতে মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ হয়েছেন রোগীর পরিজনেরা। বিষয়টি খতিয়ে দেখে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের প্রিন্সিপাল।


Refusal to treat HIV positive patients in Malda Medical College

মালদা মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন ওই ব্যক্তি ইংরেজবাজারের মাধবনগর এলাকার বাসিন্দা। জানা গিয়েছে, গত ২৯ মে একটি নির্মীয়মাণ বহুতলের কাজ করতে গিয়ে পড়ে ডান পা ভেঙে যায় ওই ব্যক্তির। পরিবারের লোকজনেরা তাঁকে একটি নার্সিংহোমে ভরতি করেন। অস্ত্রোপচার করার আগে রক্ত পরীক্ষায় তাঁর এইচআইভি পজিটিভ রিপোর্ট আসে। নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষ পরিবারের লোকজনদের জানিয়ে দেয়, এইচআইভি পজিটিভ রোগীদের চিকিৎসা করার মতো পরিকাঠামো তাঁদের নেই। রোগীকে সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয় নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষ।


বাধ্য হয়ে রোগীকে মালদা মেডিকেল কলেজে ভরতি করেন পরিবারের লোকজন। অভিযোগ, জুন মাসে মালদা মেডিকেল কলেজে ভরতি করা হলেও এখনও অস্ত্রোপচার করা হয়নি ওই রোগীর। এইচআইভি পজিটিভ থাকায় ওই রোগীর চিকিৎসা করা হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন পরিবারের লোকজন। বাধ্য হয়ে পরিবারের লোকজন মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ হয়েছেন। ঘটনা নিয়ে সরব হয়েছে বিজেপি। বিজেপির মালদা জেলার সহ-সভাপতি অজয় গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, এই রাজ্যের চিকিৎসা ব্যবস্থা নিয়ে বড়ো বড়ো কথা বলা হয়। কিন্তু চিকিৎসা পরিসেবার কী অবস্থা তা এই ঘটনা থেকে প্রমাণ হয়ে যায়।




ঘটনা শুনে রীতিমতো স্তম্ভিত তৃণমূলের মুখপাত্র শুভময় বসু। তিনি বলেন বিনা চিকিৎসায় এই রাজ্যে কেউ মারা যাবে না। এটা সরকারের ঘোষিত নীতি। ওই রোগীর চিকিৎসা করানো সম্ভব তা সম্পূর্ণ করানো হবে। শাসকদল ও সরকার তার পাশে থাকবে। মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অধ্যক্ষ ডাক্তার পার্থ প্রতিম মুখোপাধ্যায় বলেন, অভিযোগ পেয়েছি সমস্ত বিষয় খতিয়ে দেখে যথাযোগ্য ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মালদা জেলার টাটকা নিউজ এখন আমাদের অফিসিয়াল টেলিগ্রাম চ্যানেলে। বিনামূল্যে পড়তে এখানে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page