বিজ্ঞাপন

জেলায় পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু তৃণমূলের

বুথ ভিত্তিক কর্মী সম্মেলনের মাধ্যমে পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু করে দিল তৃণমূল। এদিন পুরাতন মালদার নারায়ণপুর সংলগ্ন মিশন রোড মোড়ে তৃণমূলের এই সভায় প্রায় ৪০ হাজার কর্মীর জমায়েত হয়। উপচে পড়া ভিড়ের সামনে আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে বক্তব্য রাখতে উপস্থিত ছিলেন তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বকশি, এই জেলার দলীয় পর্যবেক্ষক শুভেন্দু অধিকারী, মন্ত্রীসভার তিন সদস্য চন্দ্রনাথ সিন্‌হা, বাচ্চু হাঁসদা ও জাকির হোসেন৷ ছিলেন জেলা তৃণমূল সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন সহ সাবিত্রী মিত্র, কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরি, দুলাল সরকার সহ দলের সমস্ত স্তরের দলীয় নেতারা৷শুভেন্দুবাবু এদিন বলেন, ‘রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই জেলাকে অনেক কিছু দিয়েছেন৷ এই জেলায় একাধিক কলেজ হয়েছে, মেডিকেল কলেজের উন্নয়ন হয়েছে, নতুন থানা হয়েছে, ভূতনি সেতু হচ্ছে, চলছে আরও অনেক প্রকল্পের কাজ৷ এই জেলা থেকেই ভোটের প্রচার শুরু করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ মালদার মানুষকে বার্তা দিতে চেয়েছেন, তিনি সবসময় জেলাবাসীর পাশে রয়েছেন৷ কিন্তু মালদা তাঁকে নিরাশ করেছে৷ লোকসভা কিংবা বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের কোনও প্রার্থী এই জেলায় জিততে পারেননি৷ স্বাভাবিকভাবেই অভিমান হয়েছে দলনেত্রীর৷ তাঁর এই অভিমান এবার দূর করতে হবেই৷ সভায় যাঁরা এসেছেন, তাঁরা শপথ নিন, দলনেত্রীর এই অভিমান দূর করবেন তাঁরা৷ কে কোথায় প্রার্থী হল তা বিচার্য নয়৷ বিচার্য একটাই, ঘাসফুল আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷



তিনি আরো বলেন, কঠিন সময়ে রাজ্যের দায়িত্ব নিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তিনি দায়িত্ব নেওয়ার পর লোকসভা নির্বাচনে একটি দল ধর্মের নামে ক্ষমতায় এসেছে৷ বিধানসভা নির্বাচনে এই রাজ্যে একটি অনৈতিক জোট হয়েছে৷ লোকসভা কিংবা বিধানসভা নির্বাচনে এই জেলায় তৃণমূল একটিও আসন পায়নি৷ গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে গ্রাম পঞ্চায়েতের হাতে গোনা কিছু আসন পেলেও পঞ্চায়েত সমিতি কিংবা জেলা পরিষদে ফল ভালো হয়নি৷ পরবর্তীতে সরকারের কাজকর্ম দেখে ত্রিস্তর পঞ্চায়েত স্তরের অনেক জন প্রতিনিধি থেকে শুরু করে দু’জন বিধায়কও তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন৷ এখন এই জেলার বেশিরভাগ গ্রাম পঞ্চায়েত, পঞ্চায়েত সমিতি, এমনকি জেলা পরিষদও তাঁদের দখলে৷ কিন্তু তাঁরা এটা চান না৷ ভোটে মানুষের রায়ে জিতে ক্ষমতায় আসতে চান তাঁরা৷


নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে শুভেন্দুবাবুর বক্তব্য, এখন থেকেই গ্রামে গ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নের কথা, কেন্দ্রের বঞ্চনার কথা মানুষকে জানাতে হবে৷ এই রাজ্যে সিপিএম এখন সাইনবোর্ড হয়ে গিয়েছে৷ লক্ষ্মণ শেঠের মতো কেউ কেউ সিপিএমের লাল ঝান্ডা ছেড়ে গেরুয়া পরা শুরু করেছে৷ কিন্তু আগামী দিনে দেশের নেতৃত্ব একমাত্র মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই দিতে পারেন৷ তার প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে৷ শুভেন্দু জানিয়ে দেন, এখন থেকে শুধুমাত্র ঘাসফুল আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়া কোনও নেতার ছবি কোনও কর্মসূচিতে ব্যবহার করা যাবে না৷ ভোটের সময় প্রার্থীদের পরিচিতির জন্য ছবি ব্যবহারের প্রয়োজন হলে তা দলের রাজ্য সভাপতির নির্দেশ নিয়ে ব্যবহার করতে হবে৷ দোলের পর থেকেই ব্লকে ব্লকে নির্বাচনি সভা শুরু করে দিতে হবে৷ আসন্ন নির্বাচনে এই জেলায় ৫১ শতাংশ ভোট দখলের লক্ষ্য নিয়েছেন তাঁরা৷ এই মুহূর্তে এই জেলায় দলের মধ্যে কোনও গোষ্ঠীকোন্দল নেই বলেও এদিন সংবাদমাধ্যমের কাছে মন্তব্য করেন শুভেন্দু৷

রাজ্য তৃণমূল সভাপতি সুব্রত বকশি দলীয় কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, এই রাজ্যে ৯ কোটি ৩০ লক্ষ মানুষের বসবাস৷ এঁদের মধ্যে একজনও নেই যিনি কোনও না কোনওভাবে সরকারি প্রকল্পের সুবিধে পাননি৷ সেকারণে মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশে রয়েছেন৷ সেকারণেই গত বিধানসভা নির্বাচনে তাঁরা প্রত্যাশার চেয়ে অনেক বেশি আসন পেয়েছেন৷ তাঁরাও ভাবতে পারেননি তাঁদের ২১১টি আসন আসবে৷ এসব নেত্রীর ক্যারিশমা৷ নির্বাচনের মাধ্যমে বুথ থেকে সভাপতি পর্যন্ত নিয়োগ করে গণতান্ত্রিক দল প্রতিষ্ঠা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ মানুষের সব আশা হয়তো পূরণ করা যায় না৷ কিন্তু সবসময় তাঁদের পাশে থাকা যায়৷ দলীয় কর্মীদের সেই নির্দেশ দেন সুব্রতবাবু৷

এদিন তিনি কর্মীদের সতর্ক করে বলেন, অনেক নেতা ত্রিস্তর পঞ্চায়েতের ক্ষমতায় এসে ঠিকাদারদের সঙ্গেই যোগাযোগ রাখেন৷ কে কে এই সব কাজ করে তা তাঁরা জানেন৷ তার বিস্তারিত রিপোর্ট রয়েছে তাঁদের কাছে৷ সবাই যেন মনে রাখেন, দল পাশ থেকে সরে গেলে সেই সব নেতার কোনও দাম থাকবে না৷ দল সরে গেলে সব ফাঁকা হয়ে যাবে৷ এসব দলে চলবে না৷ এই জেলায় দলের প্রসার হচ্ছে৷ গত লোকসভা ভোটে ১৮ শতাংশ ভোট পেলেও বিধানসভা নির্বাচনে ৩০ শতাংশ ভোট পেয়েছিলেন তাঁরা৷ পঞ্চায়েত নির্বাচনে ভোটের হার ৫০ শতাংশ পেরিয়ে যাবে বলে বিশ্বাস করেন তাঁরা৷ তার জন্য এখন থেকেই কর্মীদের তৈরি হতে হবে৷

বিজ্ঞাপন

MGH.jpg
পপুলার
1

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে মালদায় মৃত ১৬

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে মালদায় মৃত ১৬
2

চোরাই মোবাইল পাচারচক্রের হদিশ, ধৃত তিন

চোরাই মোবাইল পাচারচক্রের হদিশ, ধৃত তিন
3

সরানো হল মালদা সদর মহকুমাশাসককে

সরানো হল মালদা সদর মহকুমাশাসককে
4

কেন ইংলিশবাজার? নাম পরিবর্তনের ইচ্ছে বিজেপি প্রার্থীর

কেন ইংলিশবাজার? নাম পরিবর্তনের ইচ্ছে বিজেপি প্রার্থীর
5

ইংরেজবাজারে উদ্ধার মানুষের মাথার খুলি

ইংরেজবাজারে উদ্ধার মানুষের মাথার খুলি
Earnbounty_300_250_0208.jpg