top of page

সংশোধনাগার থেকে ছাড়া পেলেন পাকুয়াহাটের দুই নির্যাতিতা

অবশেষে ঘরে ফিরলেন বামনগোলার পাকুয়াহাটে নির্যাতিতা দুই মহিলা৷ নির্যাতিতা দুই মহিলার চিকিৎসার ব্যবস্থা করে বিজেপি। এদিকে, এই ঘটনায় ইতিমধ্যে পুলিশের কাছে রিপোর্ট তলব করেছে মহিলা কমিশন।


উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার পাকুয়াহাটে চোর সন্দেহে দুই মহিলাকে বিবস্ত্র করে মারধর চলতে থাকে। গত শনিবার সেই ভিডিয়ো প্রকাশ্যে আসতেই হইচই পড়ে যায়। জানা যায়, নির্যাতিতা দুই মহিলা অন্য একটি কেসে জেল হেপাজতে রয়েছেন। এরপরই মালদায় আসেন রাজ্য মহিলা কমিশনের দুই সদস্যের প্রতিনিধি দল৷ দলের সদস্যরা দুই নির্যাতিতা ও তাঁদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথাও বলেন৷ অবশেষে আজ ঘরে ফিরলেন দুই নির্যাতিতা। দুই নির্যাতিতা মানিকচক পৌঁছলে তাঁদের হাসপাতালে নিয়ে যায় বিজেপি।


বিজেপির দক্ষিণ মালদা সাংগঠনিক জেলা সম্পাদক গৌরচন্দ্র মণ্ডল জানান, গত মঙ্গলবার বামনগোলার পাকুয়াহাটে লেবু বিক্রি করতে যাওয়া দুই মহিলাকে যেভাবে চোর অপবাদে পুলিশের সামনে বিবস্ত্র করে মারা হয়েছে। পুলিশ এই দুই মহিলার কোনও চিকিৎসার ব্যবস্থা না করে উলটে মিথ্যে মামলায় জেলে পাঠিয়েছিল৷ আজ দুই মহিলা সংশোধনাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন৷ তাঁদের মানিকচক গ্রামীণ হাসপাতালে চিকিৎসা করানো হল৷ এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী একজন মহিলা হলেও তিনি মহিলাদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ৷ নিজের রাজ্যে কি হচ্ছে, তা না দেখে উনি মণিপুর নিয়ে নিন্দায় ব্যস্ত৷ আমরা এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা পুলিশমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করছি৷



ঘটনাপ্রসঙ্গে মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন লীনা গঙ্গোপাধ্যায় ফোনে জানান,

কীভাবে এমন ঘটনা ঘটল, কোন পরিস্থিতিতে দুই নির্যাতিতাকে সংশোধনাগারে পাঠানো হল, তা নিয়ে পুলিশের কাছে রিপোর্ট চেয়ে পাঠানো হয়েছে। নির্যাতিতা ও তাঁদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে আমাদের প্রতিনিধিরা কথা বলেছেন৷ সমস্ত বিষয় খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে৷

আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page