গ্রীষ্মের উদ্‌যাপন - নাট্যসেনার সামার ফেস্ট

পূর্ণিমা রায়ঃ মালদা নাট্যসেনা আয়োজিত সামার ফেস্ট অনুষ্ঠিত হল পয়লা জুন, মালদা টাউন হলে। মালদা নাট্যসেনা দলটি বয়সে তরুণ হলেও ইতিমধ্যে তারা শহরের নাট্যামোদী দর্শকের মনে ছাপ ফেলেছে। শনিবারের অনুষ্ঠানে উপস্থিত দর্শকবৃন্দ প্রত্যক্ষ করলেন ভিন্ন স্বাদের চারটি পারফরম্যান্সের মিশেল। গানে, গল্পে, নাটকে সামার ফেস্ট যেন সামার ফিস্ট। প্রদীপ প্রজ্বলনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সূচনা করেন দীপশিখা, উপাসনা, উৎকলিকা, তিয়াসা, কুহেলিরা। সামার ফেস্টের উদ্‌বোধনী সংগীত গাইলেন তপতী। এরপর সংগীত পরিবেশনা করলেন নাট্যসেনার সদস্য সাগর, ফাল্গুনি, সৈকত, স্নেহা এবং দেবরাজ।



আমার স্বপ্নের দেশ


গানের পর ছিল দুটি নাটক। প্রথম নাটক, মালদা নাট্যসেনা প্রযোজিত 'আমার স্বপ্নের দেশ'। এই নাটকটি বাদল সরকারের 'হট্টমেলার ওপারে' থেকে অনুপ্রাণিত। দলগত সমণ্বয়ে কিছু ঘাটতি থাকলেও, নাটকটি দর্শকদের মন কাড়ে। অভিনয়ে মাতিয়ে দেন গণশা চোর রূপী মেহেদি হাসান এবং লক্ষ্মী’র ভূমিকায় মন্দিরা দাস। এছাড়া খাদ্য ভাণ্ডারের মালিকের চরিত্রে শুভঙ্কর দাস এবং ডাবওয়ালার চরিত্রে শুভম ভাস্কর প্রশংসনীয়। পার্থ মণ্ডলের আলো সামঞ্জস্যপূর্ণ।


৩৬ নম্বর বিকেলে ছাদের গল্প


'আমার স্বপ্নের দেশ' অভিনয়ের পর মঞ্চে ছাদের গল্প শোনাতে আসে কয়েকজন তরুণ তুর্কি। এই তরুণদের নেতৃত্বে চিরশ্রী দাশগুপ্ত। গানে, গল্পে, কবিতায় নস্টালজিয়া স্নাত হল প্রেক্ষাগৃহ। ফিরে এল যেন বাঙালির হারিয়ে যাওয়া ছাদের রোমান্স। চিরশ্রীর পাঠ, শ্যামরিমা ও শুভর গান, সংগীতের হারমনিকার সুরে যেন মাখা ছিল বড়ো প্রিয় সব মন খারাপগুলো।



অথ সত্যবতী কথা


সন্ধ্যার তৃতীয় পরিবেশনা ছিল বহুল প্রশংসিত শ্রুতিনাটক মালদা আবৃত্তি বলয়-এর 'অথ সত্যবতী কথা'। পরিচালনায় মধুমিতা কর্মকার। মহাভারতের আদি পর্বের সত্যবতী এবং ভীষ্ম তথা দেবব্রতের সম্পর্কের ভিন্ন স্তর, নারীর যৌনতা, মাতৃসত্তা সমস্ত নিয়ে স্বকীয় হয়ে ওঠার আকাঙ্ক্ষা, ভীষ্মের ত্যাগ ও হৃদয়ের দ্বন্দ্ব সমস্ত মূর্ত হয়ে উঠল মধুমিতা, দেবাশিস, মধুসূদন ও নীলকণ্ঠ’র সুদক্ষ কণ্ঠ চালনায়।


টোবা টেক সিং


এরপর সন্ধ্যার শেষ নিবেদন মালদা নাট্যসেনার নাটক 'টোবা টেক সিং'। মূল গল্প সাদাত হাসান মানটো, নাট্যরূপ দীপঙ্কর, পরিচালনায় কেদার, মেহেদি, দীপঙ্কর। দেশ মানে কি কোনও নির্দিষ্ট ভৌগোলিক গণ্ডিতে আবদ্ধ ভূমিখণ্ড? নাকি দেশ মানে ভালোবাসা, স্মৃতি, সত্তায় জারিত এক হৃদয় খণ্ড? আমরা প্রত্যেকেই আমাদের বুকে কি বয়ে চলি না আমাদের দেশ? সেই প্রশ্ন উসকে দেয় এই নাটক। সাম্প্রতিক রাজনৈতিক ঘটনা প্রবাহের নিরিখে অত্যন্ত সময় উপযোগী এই নাটকে ছিল হিউমারের ছড়াছড়ি। দর্শকের তুমুল হর্ষধ্বনি ও করতালি ছিল লক্ষ করার মতো। অভিনয়ে বিভিন্ন চরিত্রে দীপঙ্কর, কেদার, মেহেদি, সৈকত, পবন, অণ্বেষা, চৈতালি, অর্পিতা, স্নেহা, শুভম, শেখর, তন্ময়, ফাল্গুনি, শুভঙ্কর, ঈষিকা, অর্পিতা, শ্বেতশ্রী, উপাসনা ও সুপর্ণা নাটকটি জমিয়ে রাখেন। নাটকটির উপরি পাওনা সাগরের গান, যা আলাদা মাত্রা যোগ করে। আলোতে পার্থ-সুজন আবারও তারিফ যোগ্য। গ্রীষ্মের দাবদাহে হৃদয়ের উষ্ণতার উদ্‌যাপনের এই প্রচেষ্টা, মালদা নাট্যসেনা আগামী দিনগুলিতেও বজায় রাখবে এই আশা করছি।


#MaldaNatyaSena

1
কফিনবন্দি দেহ ফিরল মালদায়, স্যালুট জানিয়ে শেষ শ্রদ্ধা পুলিশের

Popular News

884

2
গঙ্গায় মিশে যেতে পারে ফুলহর, বাজছে বিপদ ঘণ্টা

Popular News

839

3
আত্মীয়ের বাড়িতে এসে গ্রেফতার বাংলাদেশি

Popular News

1319

4
বাংলাদেশে পণ্য পাঠানো বন্ধ করে দিলেন মহদীপুরের এক্সপোর্টার্সরা

Popular News

895

5
মালদা ডিভিশন তৈরি, অনুমতি মিললেই শুরু হবে ট্রেন পরিসেবা

Popular News

1072

পপুলার

বিজ্ঞাপন

টাটকা আপডেট
 

aamadermalda.in

আমাদের মালদা

সাবস্ক্রিপশন

যোগাযোগ

স্বত্ব © ২০২০ আমাদের মালদা

  • Facebook
  • Twitter
  • Instagram
  • YouTube
  • Pinterest
  • RSS