top of page

গণবিবাহ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী, নব দম্পতিদের উপহার ২৫ হাজার টাকা

মালদা জেলায় গাজোল কলেজের মাঠে বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টা থেকে সম্পূর্ণ আদিবাসী রীতি মেনে এক গণবিবাহের আসরের আয়োজন করা হয়। কিছুদিন আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জেলা প্রশাসনের কাছে অনুরোধ করেছিলেন আদিবাসী অধ্যুষিত ব্লকগুলির বিবাহযোগ্য দরিদ্র আদিবাসী যুবক-যুবতীদের বিবাহের আয়োজন করতে। সেইমতো এদিন জেলা পুলিশ প্রায় ৩০০ আদিবাসীর গণবিবাহের আয়োজন করে।


রাজ্য সরকারের রূপশ্রী প্রকল্পের আওতায় প্রত্যেক দম্পতিকে ২৫ হাজার টাকা করে সাহায্য করা হয়। মুখ্যমন্ত্রীর নিজে এই গণবিবাহের অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে নবদম্পতিদের উপহার সামগ্রী দিয়ে আশীর্বাদ করেন। এই অনুষ্ঠানে অতিথি আপ্যায়নের ব্যবস্থাও করা হয় জেলাপুলিশের পক্ষ থেকে।


মূলত এই গণবিবাহের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আজ মালদা থেকে যান মুখ্যমন্ত্রী। উল্লেখ্য গত ২ মার্চ জেলায় আসেন মুখ্যমন্ত্রী। পুরাতন মালদার মহানন্দা ভবনে থেকে তিনি কালিয়াগঞ্জ, গঙ্গারামপুর ও ছোটো সুজাপুরে সভা করেন। এদিন সকালে মহানন্দা ভবন থেকে বেরিয়ে হেলিকপ্টারে চেপে গাজোল কলেজের মাঠে তড়িঘড়ি করে তৈরি হওয়া অস্থায়ী হেলিপ্যাডে নামেন। আগে বাঁকুড়ায় প্রশাসনিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রীকে বলতে শোনা গিয়েছিল, বদমাইশি করে মালদায় আদিবাসী মেয়েগুলিকে ধর্মান্তর করে বিয়ে দিয়ে দিচ্ছিল বিজেপির লোকগুলো। আমরা আটকাই। পুলিশ ওদের বিয়ে দিয়েছে। গাজোলে আজ নিজে দাড়িয়ে থেকে ৩০ আদিবাসী যুবক-যুবতির চারহাত এক করলেন। ধামসা মাদলের তালে নাচলেন তাঁদের সাথে।


এদিনের অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে আদিবাসীদের অভিনন্দন জানান মুখ্যমন্ত্রী৷ পরবর্তীতে চা-বাগান এলাকায় আরও একটি গণবিবাহের আসরের কথাও উল্লেখ করেন তিনি৷ আগামী ১ এপ্রিল থেকে ৬০ বছর বয়স হলেই আদিবাসীদের মাসিক ১ হাজার টাকার পেনশনের কথাও মঞ্চ থেকে উল্লেখ করেন মুখ্যমন্ত্রী।


এদিকে, পুরাতন মালদার গণবিবাহের আসরের প্রতিবাদে যেমন ঝাড়খণ্ড দিশম পার্টির লোকজন রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখিয়েছিল৷ এদিনও ঝাড়খণ্ড দিশম পার্টির লোকজন রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখানোর চেষ্টা করে৷ কিন্তু পুলিশ প্রশাসনের লোকজন ঝাড়খণ্ড দিশম পার্টি নেতা মোহন হাঁসদাকে আটক করে বলে সূত্রে জানা গেছে৷ যদিও এখনও পর্যন্ত প্রশাসনের পক্ষ থেকে এনিয়ে কোনও মন্তব্য করা হয়নি৷



মালদা জেলার খবর ও বিনোদনের লেটেস্ট ভিডিয়ো আপডেট পেতে ক্লিক করুন

留言


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page