top of page

পজিটিভ আরও ১০, সংক্রমণের হারে বাড়ছে আতঙ্ক

লকডাউন ৪.০ শেষ পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে। কিন্তু করোনা সংক্রমণের বৃদ্ধির হার দুশ্চিন্তায় ফেলেছে সকলকে। স্বাস্থ্য দফতরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়েছেন ১০জন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে তিনজন ইংরেজবাজার ব্লকের বাসিন্দা। এছাড়া মানিকচক থেকে দু’জন এবং চাঁচল-১ নম্বর ব্লক, রতুয়া, লালবাথানি, কালিয়াচক-১ নম্বর ব্লক ও গাজোল থেকে একজন করে আক্রান্ত। জেলায় মোট সংক্রামিতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৩৮।


বৃহস্পতিবার রাত ১১টা পর্যন্ত মালদা মেডিকেল কলেজে ১,২৩৮টি নমুনার পরীক্ষায় ৪০ জনের রিপোর্ট ‘পজিটিভ’ পাওয়া যায়। এর মধ্যে ১০টি রিপোর্ট মালদা জেলার বাকি ৩০টি উত্তর দিনাজপুর জেলার। আরও ৩৮৫টি নমুনার পরীক্ষা পর্ব এখনও শেষ হয় নি। নতুন করে করোনা আক্রান্তদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে যথাযথ চিকিৎসার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে৷

মালদা মেডিকেল সূত্রে জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার মালদা মেডিকেল কলেজের ভাইরোলজি বিভাগে মালদা জেলার ৪৯১টি লালারসের নমুনা আসে। সাথে উত্তর দিনাজপুর থেকে ৪৭টি এবং দক্ষিণ দিনাজপুর থেকে ১০৫টি নমুনাও জমা হয়। এদিন পরীক্ষাগারে তিন হাজার নমুনার ‘ব্যাকলগ’ থেকে গেছে। যা গতকালের তুলনায় প্রায় এক হাজার কমেছে। মালদা মেডিকেল কলেজের ভাইরোলজি বিভাগে এখন পর্যন্ত ১৩,৬৬৪টি লালারসের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে৷



ইংরেজবাজারের ২৩ নম্বর পুর ওয়ার্ডের জগন্নাথ কলোনিতে দিল্লি থেকে ফিরে এসেছে বেশ কিছু যুবক। সেখানে একটি ফাঁকা জায়গায় এলাকার স্থানীয় যুবকরা নিজেরাই বানিয়ে ফেলেছে কোয়রান্টিন সেন্টার। এই এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা গেল, দিল্লি পুলিশ এদের কাটিয়ারগামী একটি ট্রেনে উঠিয়ে দেয়। কাটিয়ার থেকে কখনও পায়ে হেঁটে কখনো বা ছোটো গাড়িতে নিজের এলাকায় ফিরে এসেছেন ভিন রাজ্যে কাজে যাওয়া এই ব্যক্তিরা। মালদা জেলা প্রশাসন এখনও কিছু জানে না। এদের কোনও সোয়াব নেওয়াও হয়নি।



Comentarios


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page