top of page

কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বৈঠক বাতিল জেলা প্রশাসনের, উঠছে প্রশ্ন

আজ সকালে মালদায় পা রেখেছেন কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী কপিল মোরেশ্বর পাতিল। আজ দুপুরে জেলা প্রশাসনিক ভবনে প্রশাসনিক আধিকারিকদের বৈঠক করার কথা ছিল তাঁর। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর সেই বৈঠক বাতিল করলেন জেলাশাসক। জেলা প্রশাসনের সূত্রে জানাচ্ছে, নবান্ন থেকে এমন কোনো চিঠি না আসায় এই বৈঠক বাতিল করা হয়েছে। জেলাশাসক বৈঠকের বিষয় না জানলে সেই বৈঠক বাতিল করেন কীভাবে প্রশ্ন তুলেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।


আজ থেকে আগামী ১৪ তারিখ পর্যন্ত কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী কপিল মোরেশ্বর পাতিলের একগুচ্ছ কর্মসূচি রয়েছে মালদা জেলায়। বিজেপির তরফে দাবি করা হয়েছে, মন্ত্রীর সফর সূচি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রকের তরফে রাজ্যের মুখ্যসচিবকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল৷ সেই প্রতিলিপি সংবাদমাধ্যমের কাছেও পৌছয়। সেই প্রতিলিপিতে আজ দুপুরে প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে বৈঠকের কথাও উল্লেখ করা ছিল। তবে আজ সেই বৈঠক বাতিল করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব।



সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে কপিল মোরেশ্বর পাতিল জানান, আবাস যোজনা নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের বিরোধী দলনেতার তরফে বেশ কিছু অভিযোগ জানানো হয়েছিল৷ সেই অভিযোগের ভিত্তিতে কেন্দ্রের একটি দল তদন্ত করেছে। তদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পরেই পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে৷ তবে এনিয়ে আজ মালদা জেলা প্রশাসনের সঙ্গে রিভিউ মিটিং করার কথা ছিল৷ কিন্তু প্রশাসন সেই মিটিং বাতিল করে দিয়েছে৷ কেন সেই বৈঠক বাতিল করা হল, তা প্রশাসনই সঠিকভাবে বলতে পারবে৷ প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, সেই বৈঠক নিয়ে নাকি প্রশাসনের কাছে কোনো খবর ছিল না। জেলাশাসক যদি মিটিংয়ের বিষয়ে কিছু না জানতেন, তবে তিনি মিটিং বাতিল করলেন কীভাবে? যদি প্রকল্পের কাজ সঠিকভাবে হয়, তবে রিভিউ মিটিং করতে সমস্যা হওয়ার কোনও কথা নয়৷ কেন্দ্রীয় সরকারের কোনও প্রকল্পের কাজ নিয়ে কেন্দ্রের কোনও মন্ত্রী রিভিউ করতেই পারেন৷




কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, মনরেগা প্রকল্পে পশ্চিমবঙ্গ সরকার কেন্দ্রের নিয়ম মানেনি৷ কেন্দ্র প্রকল্প তৈরির পাশাপাশি সেই প্রকল্পের বেশ কিছু নিয়মাবলীও তৈরি করে৷ রাজ্য সরকার যদি কেন্দ্রীয় নিয়ম না মেনে নিজের মর্জিতে কাজ করে, তবে তার খরচ রাজ্যকেই বহন করতে হবে৷ কেন্দ্রের নিয়মে কাজ হলে মনরেগা প্রকল্পের ফান্ড বন্ধ হত না৷ এনিয়ে রাজ্যকেই প্রশ্ন করা উচিত, কেন কেন্দ্রীয় নিয়ম মেনে কাজ করা হয়নি।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Comentários


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page