top of page

থমকে উন্নয়ন, পঞ্চায়েতে একনায়কতন্ত্রের অভিযোগ তুলল দলের সদস্যরা

এককভাবে পঞ্চায়েত পরিচালনা করার কারণে থমকে গিয়েছে উন্নয়নের কাজ। চাঁচলের মতিহারপুর গ্রামপঞ্চায়েতের দলীয় প্রধানের বিরুদ্ধে এমনই অভিযোগ তৃণমূল সদস্যদের। এই ঘটনায় দলীয় নেতৃত্বের পাশাপাশি বিডিওর কাছে অভিযোগ জানিয়েছেন ক্ষুব্ধ সদস্যরা। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে কটাক্ষের সুর উঠে এসেছে বিজেপির গলায়।


চাঁচল ১ নম্বর ব্লকের মতিহারপুর গ্রামপঞ্চায়েতের ১৯ টি আসনের মধ্যে সাতটি আসন দখল করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। আটটি আসন দখল করে কংগ্রেস। বাকি চারটি আসন বামেদের দখলে যায়। পরে কংগ্রেসের চার সদস্য তৃণমূলে যোগদান করায় বোর্ড গঠন করে তৃণমূল কংগ্রেস। প্রধান নির্বাচিত হন কংগ্রেস থেকে আসা পপি দাস।



পঞ্চায়েত প্রধান পপি দাসের বিরুদ্ধে একনায়কতন্ত্রের অভিযোগ তুলেছেন দলেরই সদস্যরা। উপপ্রধান সহ দলের মোট ১০ সদস্য তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছেন। উপপ্রধানের অভিযোগ, তৃণমূল সদস্যদের গুরুত্ব না দিয়ে কংগ্রেস সদস্যদের নিয়ে কাজ করছেন প্রধান। যদিও নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন প্রধান পপি দাস। নিজেদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির কারণে এই ঘটনা বলে দাবি জেলা তৃণমূল নেতৃত্বের। জেলা তৃণমূলের কো-অর্ডিনেটর হেমন্ত শর্মা বলেন, দলীয় নেতৃত্বকে নিয়ে বসে পঞ্চায়েতের সমস্যার সমাধান করা হবে। এদিকে, ফের একবার গোষ্ঠী কোন্দলকে হাতিয়ার করে রাজ্যের শাসকদলকে আক্রমণ বিজেপির।




আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Kommentare


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page