top of page

বন্যায় ডুবে গিয়েছে আন্তর্জাতিক সীমান্তের কাঁটাতার

মালদার বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি ঘটেছে। ফুলহার নদীর জল কিছুটা কমলেও ব্যাপক হারে বাড়ছে মহানন্দা, গঙ্গা, টাঙ্গন সহ পূর্ণভবা নদীর জল। আর এতেই জলমগ্ন হয়ে পড়লো ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর ৬টি সীমা চৌকি। উল্লেখ্য, পূর্ণভবা ও টাঙ্গন নদীর জলে প্লাবিত হয়েছে হবিবপুর এবং বামনগোলা ব্লকের বিস্তৃর্ণ এলাকা।


ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে ডুবে গিয়েছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর খুটাদহ, পান্নাপুর, জেজেপুর, টিকিয়াপাড়া, কেদারিপাড়া এবং আগ্রা-হরিশ্চন্দ্রপুর সীমা চৌকি। সীমান্তরক্ষী বাহিনীর মালদা রেঞ্জের ডিআইজি অজিত টেটে জানান যে বন্যার ফলে ডুবে গিয়েছে আন্তর্জাতিক সীমান্তের কাঁটাতার। ফলস্বরূপ কার্যত উন্মুক্ত হয়ে গেছে আন্তর্জাতিক সীমান্ত। এই সুযোগে সীমান্তে অনুপ্রবেশে বৃদ্ধির আশঙ্কা রয়েছে। এই পরিস্থিতিতে কোথাও স্পিড বোটে আবার কখনো বা একবুক জলে নেমে সীমান্ত পাহাড়া দিতে হচ্ছে সীমান্তরক্ষী বাহিনীর জওয়ানদের। ডিআইজি জানান যে সবচেয়ে বেশি সমস্যা হচ্ছে রাত্রিবেলা। যেভাবে রাত্রিবেলা নদীগুলির জল বাড়ছে, তাতে বিস্তৃর্ণ এলাকা প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কা তো রয়েছে তার সঙ্গে রয়েছে পর্যাপ্ত আলোর অভাব। পোর্টেবল ড্রাগন লাইটের সাহায্যে সীমান্ত পাহারা দিচ্ছেন জওয়ানরা। গোদের ওপর বিষফোঁড়া বিষাক্ত সাপের উপদ্রব। তবে এত অসুবিধা সত্ত্বেও কর্তব্যে গাফিলতি হচ্ছে না বলে জানান অজিতবাবু।


উন্মুক্ত হয়ে গেছে আন্তর্জাতিক সীমান্ত

আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Comentarios


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page