বিজ্ঞাপন

বাবাই খুন করেছে মাকে, দাবি মেয়ের


রেললাইন থেকে এক গৃহবধূর ক্ষতবিক্ষত মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে পুরাতন মালদার রাঙামাটিয়া গ্রামে৷ ওই বধূকে খুন করা হয়েছে বলে দাবি সবার৷ এই ঘটনায় এলাকাবাসীর সঙ্গে মৃত বধূর মেয়েও তাঁর বাবার দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন৷ ঘটনার পর থেকেই পলাতক থাকলেও দুপুরে মৃত বধূর স্বামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷ রেলপুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজে পাঠিয়েছে৷ গোটা ঘটনায় পুলিশি তদন্ত শুরু হয়েছে৷


মৃতের নাম পদ্মাবতী মণ্ডল৷ বয়স ৪২৷ স্বামী সুশীল মণ্ডল স্থানীয় একটি কারখানায় নৈশপ্রহরীর কাজ করেন৷ পদ্মাবতীদেবীও স্থানীয় একটি কারখানায় শ্রমিকের কাজ করতেন৷ তাঁদের দুই মেয়ে, এক ছেলে৷ সকলেই বিবাহিত৷ গতকাল স্ত্রীকে বাবার বাড়ি থেকে নিয়ে আসতে গিয়েছেন ছেলে৷ এদিন সকালেও তাঁরা বাড়ি ফেরেননি৷ রাঙামাটিয়া গ্রামে রেললাইনের পাশেই তাঁদের বাড়ি৷ এদিন সকালে বাড়ির পিছনে লাইনের উপর পদ্মাবতীদেবীর খণ্ডিত দেহ দেখতে পান এলাকার মানুষজন৷ তাঁরা প্রথমে রেলপুলিশে খবর দেন৷ এরপর মৃতের বাড়িতে দিয়ে স্থানীয়রা দেখতে পান, ঘরের ভিতর ও উঠোনে পড়ে রয়েছে চাপ চাপ রক্ত৷ তখনই তাঁদের সন্দেহ হয়, পদ্মাবতীদেবী রেল দুর্ঘটনায় মারা যাননি৷ তাঁকে বাড়িতেই খুন করা হয়েছে৷ পরে প্রমাণ লোপাটের জন্য তাঁর দেহ রেললাইনে ফেলে দেওয়া হয়৷ সেখানে কোনও ট্রেনের চাকায় তাঁর দেহ খণ্ড খণ্ড হয়ে যায়৷ তবে সেখানে দেখতে পাওয়া যায়নি সুশীল মণ্ডলকে৷

স্থানীয় বাসিন্দা অনিমা মণ্ডল বলেন, পদ্মাবতীদেবীর সঙ্গে তাঁর স্বামীর সম্পর্ক ভালো ছিল না৷ প্রায়শই তাঁরা ঝগড়া করতেন৷ এনিয়ে স্ত্রীকে মারধরও করত সুশীল৷ তাঁদের সন্দেহ, স্ত্রীকে বাড়িতে খুন করে প্রমাণ লোপাটের জন্যই পদ্মাবতীদেবীর দেহ রেললাইনে ফেলে দেয় সুশীল৷ ট্রেনের চাকায় পদ্মাবতীদেবীর দেহ খণ্ডবিখণ্ড হয়ে যায়৷ প্রায় একই বক্তব্য পদ্মাবতীদেবীর মেয়ে দুর্গা মণ্ডলেরও৷ তিনি বলেন, কারণে অকারণে তাঁর মা’কে মারধর করত বাবা৷ তাঁর মা’কে কোনওদিন সুখ দিতে পারেনি বাবা৷ তাঁর বাবাই মা’কে খুন করেছে৷ এবিষয়ে যথাযথ পুলিশি তদন্তের দাবি জানিয়েছেন তিনি৷

ঘটনার খবর পেয়ে তদন্তে যান মালদা থানার ওসি মানবেন্দ্রনাথ সাহা৷ তিনি এবং অন্যন্য পুলিশকর্মীরা দীর্ঘক্ষণ পদ্মাবতীদেবীর বাড়িতে পর্যবেক্ষণ করেন৷ বেশ কয়েকটি জিনিসও তাঁরা তদন্তের স্বার্থে বাজেয়াপ্ত করেছেন৷ তবে বাড়ি থেকে কোনও অস্ত্র পাওয়া যায়নি৷ এদিকে দুপুরে এলাকাতেই লুকিয়ে থাকা সুশীল মণ্ডলকে গ্রেফতার করা হয়৷ থানায় পুলিশি জেরায় সুশীল নিজের কৃতকর্মের কথা স্বীকার করে নেয় বলে জানা গিয়েছে৷ পুলিশ সূত্রের খবর, পারিবারিক বিবাদ থেকেই স্ত্রীকে বাড়িতে খুন করে সুশীল৷ বর্তমানে খুনে ব্যবহৃত অস্ত্রটির খোঁজ চলছে৷

প্রতীকী ছবি সৌজন্যে পিক্স অ্যাবে।

#Crime #DigitalDesk

বিজ্ঞাপন

MGH
পপুলার
1

মালদায় শুরু করোনা টিকাকরণ, প্রথম টিকা পেলেন কৃষ্ণা

521

মালদায় শুরু করোনা টিকাকরণ, প্রথম টিকা পেলেন কৃষ্ণা
2

অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে মালদায় এল করোনা ভ্যাকসিন

1175

অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে মালদায় এল করোনা ভ্যাকসিন
3

বাসের জন্য নতুন স্টপেজ রথবাড়িতে

5872

বাসের জন্য নতুন স্টপেজ রথবাড়িতে
4

করোনার বিষ দাঁত ভেঙে শুরু হচ্ছে বইমেলা

728

করোনার বিষ দাঁত ভেঙে শুরু হচ্ছে বইমেলা
5

চাকরির টোপে প্রতারণার অভিযোগ জেলাপরিষদ সদস্যের বিরুদ্ধে

964

চাকরির টোপে প্রতারণার অভিযোগ জেলাপরিষদ সদস্যের বিরুদ্ধে
Earnbounty_300_250_0208.jpg
At the Grocery Shop
টাটকা আপডেট

সাবস্ক্রিপশন

স্বত্ব © ২০২০ আমাদের মালদা

  • Facebook
  • Twitter
  • Instagram
  • YouTube
  • Pinterest
  • RSS