বিজ্ঞাপন

শুরু হল দুদিনের আম ও পর্যটন উৎসব

পর্যটন ও উদ্যানপালন দপ্তরের উদ্যোগে শুরু হল দুদিনের আম ও পর্যটন উৎসব। শনিবার পুরাতন মালদার নারায়ণপুরের একটি বিলাসবহুল হোটেলে উৎসবের সূচনা করেন পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব৷


এদিন এই উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মন্ত্রী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন রাজ্য পর্যটন দপ্তরের একাধিক শীর্ষকর্তা, দুই প্রাক্তন মন্ত্রী সাবিত্রী মিত্র ও কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরি, জেলা পরিষদের সভাধিপতি সরলা মুর্মু সহ জেলা প্রশাসনের একাধিক শীর্ষকর্তা, জেলার বিভিন্ন স্তরের জনপ্রতিনিধি সহ আরও অনেকে৷ ওই হোটেলে একটি আম প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করা হয়েছে ৷ সেখানে জায়গা পেয়েছে জেলায় উৎপাদিত ১০০ প্রজাতির আম সহ বিভিন্ন ধরণের আমজাত দ্রব্য৷ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর সেই প্রদর্শনী ঘুরে দেখেন মন্ত্রী সহ উপস্থিত সকলেই৷



শহর থেকে প্রায় ছয় কিলোমিটার দূরে এই উৎসবে সাধারণ মানুষ কতটা অংশ নেবেন তা নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন৷ শুধু তাই নয়, খোলা জায়গা ছেড়ে হোটেলে এমন উৎসবের আয়োজন কেন তা নিয়েই শুরু হয়েছে গুঞ্জন৷ সংবাদমাধ্যমের এই প্রশ্নের মুখে দৃশ্যতই অস্বস্তিতে পড়ে যান মন্ত্রী৷ সামাল দিতে এগিয়ে আসেন জেলাশাসক৷

বক্তব্য রাখতে গিয়ে মন্ত্রী বলেন, মালদা আর আম সমার্থক শব্দ৷

আম ছাড়া যেমন মালদাকে ভাবা যায় না, তেমনই মালদা ছাড়া আম ভাবা যায় না৷ একসময় রেশমের জন্যও এই জেলা বিখ্যাত ছিল৷ শুধু তাই নয়, এই জেলায় প্রচুর ঐতিহাসিক নিদর্শন রয়েছে৷ মধ্যযুগে মালদা বঙ্গের রাজধানী ছিল৷ গৌড়, আদিনা ও পাণ্ডুয়ায় তার প্রচুর নিদর্শন রয়েছে৷ জগজ্জীবনপুরে রয়েছে প্রাচীন বৌদ্ধ সংস্কৃতির নিদর্শন৷ শ্রীচৈতন্যদেবের পদধুলি পড়েছে গৌড়ে৷ সেখানে তাঁর সুপ্রাচীন মন্দিরও রয়েছে৷ এই সবকিছুকে একসঙ্গে এনে তাঁরা একটি সার্কিট তৈরির উদ্যোগ নিচ্ছেন৷ তবে শুধু প্রাচীন নিদর্শনকে নিয়েই নয়, তাঁদের পর্যটন ভাবনায় রয়েছে ভূতনি থেকে রাজমহল পর্যন্ত নৌ পর্যটনও৷ ইতিমধ্যে রাজ্য পরিবহণ দপ্তর মালদা জেলা প্রশাসনকে একটি লঞ্চ দিয়েছে৷ পর্যটনে সেই লঞ্চ ব্যবহার হতে পারে৷ সাগরদিঘিতে রয়েছে এশিয়ার সবচেয়ে বড়ো মৎস্য খামার৷ সেখানেও পর্যটন শুরু করা যেতে পারে৷ সব কিছু নিয়েই তাঁরা চিন্তাভাবনা করছেন৷ খুব তাড়াতাড়ি তাঁরা মালদাকে অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে তৈরি করতে চান৷ কারণ, এখন পাহাড়ে অস্থির অবস্থা চলছে৷ পর্যটকরা পাহাড়ে যেতে পারছেন না৷ তাই এখন ডুয়ার্স সহ অন্যান্য পর্যটনকেন্দ্রগুলিতে ভিড় বাড়ছে৷ অনেক পর্যটক ঐতিহাসিক জায়গা দেখতে পছন্দ করেন৷ তাঁদের কথা ভেবেই মালদা ও মুর্শিদাবাদকে ঐতিহাসিক পর্যটনকেন্দ্র হিসেবে তৈরি করার চিন্তাভাবনা করছেন তাঁরা৷

কিন্তু শহর থেকে প্রায় ছয় কিমি দূরে বিলাসবহুল হোটেলে এমন উৎসবের আয়োজন কেন করা হল? সেই প্রশ্নের উত্তরে গৌতমবাবু প্রথমে বলেন, সেটা জেলা প্রশাসন ভালো বলতে পারবে৷ পরক্ষণেই তাঁর পাশে থাকা জেলাশাসক বলে ওঠেন, উৎসব কেন্দ্রে আসার জন্য প্রশাসনের তরফে মালদা স্টেশনে গাড়ির ব্যবস্থা করা হয়েছে৷ জেলা প্রশাসনের শীর্ষকর্তার এই বক্তব্য শুনেই মন্ত্রী অস্বস্তি কাটাতে বলে ওঠেন, মালদাকে ব্র্যান্ড করার চেষ্টা চালাচ্ছেন তাঁরা৷ উৎসব কোথায় হল তা বিচার্য নয়৷


#MangoFestival #Malda

বিজ্ঞাপন

Malda Guinea House.jpg

পপুলার

1

শীতের বনভোজনে ইংরেজবাজারে নিষেধাজ্ঞা পুলিশের

Popular News

695

শীতের বনভোজনে ইংরেজবাজারে নিষেধাজ্ঞা পুলিশের
2

গ্রেফতার সাত ডাকাত, উদ্ধার হাঁসুয়া, লোহার রড

Popular News

661

গ্রেফতার সাত ডাকাত, উদ্ধার হাঁসুয়া, লোহার রড
3

মানিকচকে গঙ্গায় ডুবল ভেসেল, সার্চলাইট জ্বালিয়ে খোঁজ

Popular News

623

মানিকচকে গঙ্গায় ডুবল ভেসেল, সার্চলাইট জ্বালিয়ে খোঁজ
4

সুজাপুরে বিস্ফোরণস্থলে এলেন ফিরহাদ হাকিম, আসছে ফরেনসিক দল

Popular News

702

সুজাপুরে বিস্ফোরণস্থলে এলেন ফিরহাদ হাকিম, আসছে ফরেনসিক দল
5

তীব্র বিস্ফোরণ সুজাপুরের প্লাস্টিক কারখানায়

Popular News

1306

তীব্র বিস্ফোরণ সুজাপুরের প্লাস্টিক কারখানায়
Earnbounty_300_250_0208.jpg
At the Grocery Shop
টাটকা আপডেট
কমেন্ট করুন
 

aamadermalda.in

সাবস্ক্রিপশন

স্বত্ব © ২০২০ আমাদের মালদা

  • Facebook
  • Twitter
  • Instagram
  • YouTube
  • Pinterest
  • RSS