বিজ্ঞাপন

বিয়ের মাত্র ১০ মাস পরেই ষোড়শী বধূকে খুনের অভিযোগ


কিশোরী বধূর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করল চাঁচল থানার পুলিশ৷ এক বিঘা জমি ও বসত বাড়ির লোভে বিয়ের ১০ মাস পেরোতেই এক কিশোরী বধূকে খুনের অভিযোগ উঠল৷ বুধবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে চাঁচল থানার মল্লিকপাড়া গ্রামে৷ এই ঘটনায় এদিন পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন মৃতের বাবা৷ অভিযোগ, শ্বাসরোধ করে খুন করার পর তাঁর মেয়েকে ঘরের সিলিং ফ্যান থেকে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে৷ পুলিশ অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে৷ এই ঘটনায় অভিযুক্ত স্বামী ও শ্বশুর গ্রেফতার হলেও পলাতক শাশুড়ি৷ তার খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ৷


অভিযোগ বুধবার রাতে তারা মারধর করার পর গলা টিপে ও মুখে বালিশ গুঁজে খুন করে৷ খুন করার পর ঘরের সিলিং ফ্যান থেকে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে৷

মৃত ষোড়শী বধূর নাম আদুরি খাতুন৷ বাবার বাড়ি চাঁচল থানারই জগন্নাথপুর গ্রামে৷ বাবা শেখ রব্বানি পেশায় দিনমজুর৷ ভিনরাজ্যে শ্রমিকের কাজেও যান৷ আদুরি তাঁর একমাত্র মেয়ে৷ পরিবারের আর্থিক সংকটের জন্যই নাবালিকা মেয়ের বিয়ে দিয়ে দিয়েছিলেন তিনি৷ তেমনটাই জানিয়েছেন তিনি৷ গত ১৭ সেপ্টেম্বর তিনি মল্লিকপাড়া গ্রামের যুবক শেখ মিন্টুর সঙ্গে মুসলিম শরিয়ত আইন অনুযায়ী আদুরির বিয়ে দেন৷ ২৫ বছরের মিন্টু ও পেশায় শ্রমিক৷ বাড়িতে রয়েছেন তাঁর বাবা ইলিয়াস আলি ও মা মিনা বিবি৷ তাদের অবস্থাও খুব ভালো নয়৷ কিন্তু জামাইকে অত্যন্ত স্নেহ করতেন রব্বানি সাহেব৷ এলাকার মানুষজন সেকথা স্বীকার করেছেন৷

সম্ভবত সেই স্নেহই কাল হয় আদুরির৷ রব্বানি সাহেব পুলিশকে জানিয়েছেন, পৈতৃক সূত্রে পাওয়া তার কয়েক বিঘা জমি রয়েছে৷ বিয়ের পর থেকেই মিন্টু ও তার বাবা-মা এক বিঘা চাষযোগ্য জমি ও একটি বসতবাড়ির জন্য তাঁর মেয়েকে চাপ দিচ্ছিল৷ কিন্তু তাঁর মেয়ে শ্বশুরবাড়ির সবাইকেই জানিয়ে দেয়, তিনি তাদের এই চাহিদা পূরণ করতে পারবেন না৷ এরপর থেকেই মিন্টু ও তার বাবা-মা তাঁর মেয়ের উপর শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার করতে শুরু করে৷ তিনি এনিয়ে বেশ কয়েকবার জামাইকে বোঝান৷ কিন্তু কোনও কাজ হয়নি৷ অবশেষে বুধবার রাতে তারা তাঁর মেয়েকে মারধর করার পর গলা টিপে ও মুখে বালিশ গুঁজে খুন করে৷

পরে আদুরির দেহ তারা ঘরের সিলিং ফ্যান থেকে ওড়নার ফাঁস দিয়ে ঝুলিয়ে দেয়৷ খবর পেয়ে রাতেই তাঁরা মেয়ের বাড়িতে ছুটে যান৷ মিন্টুরা তাঁদের বলে, আদুরি আত্মঘাতী হয়েছে৷ কিন্তু সেকথা তাঁরা কেউ বিশ্বাস করেননি৷ খবর পেয়ে রাতেই পুলিশ আদুরির মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায়৷

ঘটনা প্রসঙ্গে চাঁচল থানার পুলিশ জানিয়েছে, আপাতত মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে৷ ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়া গেলেই মৃত্যুর কারণ সঠিকভাবে জানা যাবে৷ এই ঘটনায় মৃত বধূর বাবা একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন৷ তার ভিত্তিতে তদন্ত শুরু হয়েছে৷ অভিযুক্ত মিন্টু শেখ ও তার বাবা ইলিয়াস আলিকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ তবে মিনা বিবি পলাতক৷ তাঁর খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে৷

#Crime #DigitalDesk

বিজ্ঞাপন

Republic-Day.jpg
পপুলার
1

শহরের জঞ্জাল পরিষ্কার হবে কীভাবে? প্রশ্ন বঙ্গরত্নের

573

শহরের জঞ্জাল পরিষ্কার হবে কীভাবে? প্রশ্ন বঙ্গরত্নের
2

জেলায় দ্বিতীয় বইমেলার প্রস্তুতি শুরু

3029

জেলায় দ্বিতীয় বইমেলার প্রস্তুতি শুরু
3

স্থান বদলে শুরু হল মালদা বইমেলা, চলবে ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত

3295

স্থান বদলে শুরু হল মালদা বইমেলা, চলবে ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত
4

মালদায় শুরু করোনা টিকাকরণ, প্রথম টিকা পেলেন কৃষ্ণা

634

মালদায় শুরু করোনা টিকাকরণ, প্রথম টিকা পেলেন কৃষ্ণা
5

অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে মালদায় এল করোনা ভ্যাকসিন

1194

অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে মালদায় এল করোনা ভ্যাকসিন
Earnbounty_300_250_0208.jpg
At the Grocery Shop
টাটকা আপডেট

সাবস্ক্রিপশন

স্বত্ব © ২০২০ আমাদের মালদা

  • Facebook
  • Twitter
  • Instagram
  • YouTube
  • Pinterest
  • RSS