top of page

উৎসবে ভাঁটা, এক অন্য পঁচিশে বৈশাখ

ইংরেজবাজারে আজ জেলাপুলিশের একটি র‍্যালির আয়োজন করা হয়েছিল। পথচলতি মানুষের হাতে মাস্ক তুলে দেন পুলিশকর্মীরা। মিছিল শেষে পুলিশকর্তারা রবীন্দ্রনাথের মূর্তিতে মাল্যদান করেন। চাঁচল থানার উদ্যোগেও পালিত হয় রবীন্দ্রজয়ন্তী। আবার রবীন্দ্রনাথের জন্মজয়ন্তী পালন করতে গিয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে ভুলে যেতে দেখা গেল পুরকর্তৃপক্ষকে। অবশ্য সেই ভুল স্বীকার করেছেন চেয়ারম্যান।


Rabindranath Tagore

লকডাউনের মধ্যেই পালিত হচ্ছে রবীন্দ্র জয়ন্তী। ইংরেজবাজার পুরসভার পক্ষ থেকে রবীন্দ্রনাথের জন্মজয়ন্তী পালন করা হয়। কবিগুরুর মূর্তিতে মাল্যদান করে পুরসভার চেয়ারম্যান নীহাররঞ্জন ঘোষ, ভাইস চেয়ারম্যান দুলাল সরকার সহ বেশ কিছু কাউন্সিলররাও। রবীন্দ্রনাথের জন্মজয়ন্তী পালন করতে গিয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে ভুলে যেতে দেখা গেল পুরকর্তৃপক্ষকে। সেই ভুল স্বীকার করেছেন চেয়ারম্যানও।

অন্যদিকে, জেলাপুলিশের পক্ষ থেকে আজ মালদা শহরের রাস্তায় মিছিলের আয়োজন করা হয়। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সারা শহর পরিক্রমা করতে দেখা যায় পুলিশকর্মীদের। পথচলতি মানুষের হাতে মাস্ক তুলে দেয় পুলিশকর্মীরা। মিছিলে পা মেলায় পুলিশসুপার অলোক রাজোরিয়া, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দীপক সরকার, ডেপুটি পুলিশ সুপার প্রশান্ত দেবনাথ সহ অন্যান্য পুলিশ আধিকারিকরা। মিছিল শেষে পুলিশকর্তারা রবীন্দ্রনাথের মূর্তিতে মাল্যদান করে।


পুলিশসুপার অলোক রাজোরিয়া বলেন, কবিগুরু রবীন্দ্রনাথকে শ্রদ্ধা জানাতে মালদা শহরে একটি র‍্যালির আয়োজন করা হয়েছিল৷ এই র‍্যালির মাধ্যমে শারীরিক দূরত্ববিধি বজায় রেখে মালদাবাসীকে করোনা সচেতনার বার্তা দেওয়া হয়েছে৷

চাঁচল থানার উদ্যোগেও পালিত হয় রবীন্দ্রজয়ন্তী। চাঁচল থানা থেকে ট্যাবলো সহ মিছিল বেরোয় রাস্তায়। সামাজিক দূরত্ববিধি মেনে ৫ কিলোমিটার এলাকা প্রদক্ষিণ করে ট্যাবলো। নেতৃত্বে ছিলেন চাঁচলের এসডিপিও সজলকান্তি বিশ্বাস। উপস্থিত ছিলেন চাঁচল থানার আইসি সুকুমার ঘোষ সহ অন্যান্য পুলিশকর্মী ও সিভিক ভলান্টিয়াররা। শহরঘুরে ট্যাবলো নিয়ে কবিগুরুকে শ্রদ্ধার পাশাপাশি করোনা নিয়ে বাসিন্দাদের সচেতনও করে পুলিশ। মাস্ক না পড়ে বাইরে বের না হওয়া, অকারণে বাইরে না বের হওয়ার জন্য বাসিন্দাদের সচেতন করা হয়।



বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page