বিজ্ঞাপন

নাট্যসেনার নাটকঃ অবশেষে, স্নিগ্ধ হল মন!

মালদা শহরের নাটক দলের মধ্যে নতুন সংযোজন মালদা নাট্যসেনার। গত ৯ ডিসেম্বর দুর্গাকিংকর সদনে পরিবেশিত হল দলের প্রথম প্রযোজনা ‘স্নিগ্ধতার অবশেষে…’। শহরের বুকে শহরের নাটক, তাও আবার 'থ্রিলার'। কাজটা খুব সহজ ছিল না নিশ্চয়ই। কিন্তু এই কঠিন কাজকে সার্থক করে তুলেছে এই নতুন দল। হিংসা, বিদ্বেষ, লোভ, কামনা, আকাঙ্ক্ষার এক গল্প গাঁথা রহস্য নাটক ‘স্নিগ্ধতার অবশেষে...’।

নাটকের শুরু ‘রাজা ইডিপাস’ এর সাথে। নাটকের ভেতরে নাটক- ইডিপাস আর জোকসটার কথোপকথন চলছে; অতীতের অনুসন্ধানে সত্যের মুখোমুখি ইডিপাস। সব শেষে জোকসটার মৃতদেহ রেখে বলছেন, ‘ঘুমাও জোকসটা, ঘুমাও’। জোকসটার ভূমিকায় নাটকের নায়িকা মনীষা চৌধুরি (সংহিতা) চিরদিনের মতো ঘুমিয়ে পড়লেন। তার আকস্মিক মৃত্যু আলোড়ন ফেলে দিলো বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে। খবর সঞ্চালকের ভিড়ে, ক্যাকোফোনিতে ভোরে গেলো মঞ্চ। এক বিখ্যাত নায়িকার মৃত্যুকে ঘিরে উত্তেজনা ছাপিয়ে গেলো হাজার হাজার লাঞ্ছিত, শোষিত মানুষের খবরকে। এই মৃত্যুর অনুসন্ধানের খোঁজে নিযুক্ত হলেন ক্রাইম রিপোর্টার অভিজিৎ (কেদার) আর নীল (শুভম)।



ইডিপাস চরিত্রে অভিনয় করছিলেন ফারহান আলি (মেহেদি হাসান)। ফারহান আর মনীষার সম্পর্ক দিয়ে আমাদের নাটক ফ্ল্যাশব্যাকে চলে যায়। উচ্চাকাঙ্ক্ষী মনীষা চলচ্চিত্র জগতে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে ইচ্ছুক মনীষা। ফারহান তার মা-বাবাকে ছেড়ে চলে যেতে নারাজ। ফারহান জানায় যে তাদের এই সম্পর্ককে কোনোদিন সমাজ স্বীকৃতি দেবে না, এই ধর্মের বিভেদকে তাদের পরিবার মেনে নিতে পারবে না কোনোদিন। বিচ্ছেদ ঘটে তাদের। যখন মনীষা খ্যাতি লাভ করছে, ফারহান তখনও নাটকের মধ্যেই খুঁজে চলেছে তার স্থান। অভিজিৎ আর নীল জেরা করছে ফারহানকে। আবার ফারহান এর স্ত্রীকে অপ্রস্তুত প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হচ্ছে একটি সংবাদ চ্যানেলে। ‘অতীতের অনুসন্ধানে’ একে একে উঠে আসছে নতুন চরিত্ররা- মনীষার স্বামী আম্বীকেশ (দীপঙ্কর), আম্বীকেশের ড্রাইভার, তার প্রথম পক্ষের সন্তান অমিতাভ (দেবরাজ)। দুঘণ্টার টানটান উত্তেজনার অবসান ঘটছে অভিজিৎ আর নীলের হস্তক্ষেপে।

বর্তমান আর অতীতকে খুব সাবলীলভাবে মিশিয়ে দিয়েছে নাটকের ন্যারাটিভ। ফ্ল্যাশব্যাকের সাথে বর্তমানের মিলনে উঠে এসেছে ইডিপাস, উঠে এসেছে ম্যাকবেথ। তুলে ধরা হয়েছে হিংসার ইতিবৃত্ত।

এই রহস্যে মোড়া ন্যারাটিভকে আরও সুন্দর করে তুলেছে দেবলীনা মৈত্রর আলো। গজল থেকে আধুনিক গানের ব্যবহার নাটকের প্রত্যেকটি ঘটনাকে বেঁধে রাখে। সৈকত রায়ের গান প্রশংসনীয়। আলো-আঁধারে প্রপ-এর স্বল্প অথচ যথাযথ ব্যবহারে অনেক দৃশ্য মনকে ছুঁয়ে যায়। সিগারেটের ধোঁয়ায় উড়ে যাচ্ছে ভ্রম; মিশে যাচ্ছে সত্য আর অসত্য; এই ‘ফেয়ার ইস ফাউল/ফাউল ইস ফেয়ার’ এর দ্বন্দ্ব ধরা পড়েছে অভিনয়ে। মেহেদি হাসান, দীপঙ্কর, কেদার, সংহিতা, শুভমের অভিনয় যেমন মন কাঁড়ে, তেমনি তাদের টেক্কা দিয়ে অভিনয় করেছে নবাগতরা।

রহস্য ভেদ হচ্ছে ঠিকই- কিন্তু শেষে পরে থাকছে নতুন দিশার আলো। মানুষের সাথে মানুষের, আবার নিজের সাথে নিজের লড়াই-এ উঠে এসেছে লেখকের কল্পনার প্রতীকী মানসী। ভ্রম আর সত্যের খোঁজে হারিয়ে যাচ্ছে সব চরিত্র কিন্তু অবশেষে সব অশুভ শক্তিকে উপড়ে ফেলে পড়ে থাকে ভালোবাসা। 'হিংসায় উন্মত্ত পৃথ্বী' তবু মানুষ আশা রাখে এক নতুন সকালের। ‘স্নিগ্ধতার অবশেষে...’ আবার স্নিগ্ধতাই কাম্য। যেই ভালোবাসার আশায় মানুষ মন বাঁধে, সেই ভালোবাসার হাত ধরেই যাত্রা শুরু মালদা নাট্য সেনার। পূর্ণ প্রেক্ষাগৃহে দর্শকের করতালি এই 'থ্রিলার' এর প্রাপ্তি। নতুনের আশায় আবার বুক বাঁধল মালদার থিয়েটার প্রেমী মানুষ।


#NatyaSena

58 views

বিজ্ঞাপন

MGH.jpg
পপুলার
1

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে মালদায় মৃত ১৬

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে মালদায় মৃত ১৬
2

চোরাই মোবাইল পাচারচক্রের হদিশ, ধৃত তিন

চোরাই মোবাইল পাচারচক্রের হদিশ, ধৃত তিন
3

সরানো হল মালদা সদর মহকুমাশাসককে

সরানো হল মালদা সদর মহকুমাশাসককে
4

কেন ইংলিশবাজার? নাম পরিবর্তনের ইচ্ছে বিজেপি প্রার্থীর

কেন ইংলিশবাজার? নাম পরিবর্তনের ইচ্ছে বিজেপি প্রার্থীর
5

ইংরেজবাজারে উদ্ধার মানুষের মাথার খুলি

ইংরেজবাজারে উদ্ধার মানুষের মাথার খুলি
Earnbounty_300_250_0208.jpg