বিজ্ঞাপন

অভাবের তাড়নায় আত্মহত্যার চেষ্টা দম্পতির

দিনের আলোয় এক দম্পতির আত্মহত্যার চেষ্টার ঘটনায় এদিন সকালে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়াল মানিকচক থানার কালিন্দ্রী গ্রামে৷ আশঙ্কাজনক অবস্থায় গ্রামের লোকজন ওই দম্পতিকে মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসকরা স্ত্রীকে মৃত বলে ঘোষণা করেন৷ স্বামীর অবস্থাও অত্যন্ত আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা৷ ওই যুবকের মা জানিয়েছেন, অভাবের তাড়নাতেই আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেছে তাঁর ছেলে ও পুত্রবধূ৷ এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কোনও অভিযোগ দায়ের না হলেও ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে মানিকচক থানার পুলিশ৷



মৃত বধূর নাম অর্চনা রজক৷ বয়স ২৬৷ বছর আটেক আগে দেখাশোনা করেই তাঁর বিয়ে হয় মানিকচক থানার কালিন্দ্রী গ্রামের যুবক রাম রজকের সঙ্গে৷ রামের বয়স ২৮৷ তাঁদের ৬ বছরের একটি পুত্রসন্তানও রয়েছে৷ এদিন সকালে নিজেদের বাড়িতেই আলাদা আলাদা জায়গায় গলায় ফাঁস দেন রাম ও অর্চনা৷ সেই অবস্থায় তাঁদের দেখে ফেলেন প্রতিবেশীরা৷ তাঁরা ছুটে এসে ফাঁস কেটে নামিয়ে দুজনকে তড়িঘড়ি মালদা মেডিক্যালে নিয়ে যান৷ ততক্ষণে মৃত্যু হয় অর্চনার৷

রামের মা পারুল রজক জানিয়েছেন, বেশ কিছুদিন ধরেই তাঁর ছেলের সংসারে তীব্র অভাব অনটন চলছিল৷ কয়েক মাস ধরে তাঁর ছেলের কোনও কাজ ছিল না৷ সে বাইরে শ্রমিকের কাজ করার জন্য এলাকার এক ঠিকাদারকে ধরেছিল৷ কিন্তু সেখানে তার কাজ জোটেনি৷ এরপর তাঁর ছেলে স্থানীয় একটি ইটভাটায় কাজ করবে বলে স্থির করে৷ সে ভাটাতে কথাও বলে আসে৷ ভাটা মালিক তাকে ৮ দিন পর কাজে ডাকেন৷ কিন্তু সেই কাজও তার হয়নি৷ মালিক তাকে জানিয়ে দেন, ভাটায় ইতিমধ্যেই পর্যাপ্ত শ্রমিক রয়েছে৷ ফলে এখন তাকে আর কাজে রাখা যাবে না৷ এদিকে রোজগার না থাকায় পুত্রবধূর সঙ্গে তাঁর ছেলের প্রায় প্রতিদিনই বচসা হত৷ সংসার কীভাবে চলবে তা নিয়েই তাদের বচসা৷ এদিন সকালে তিনি কাজে গিয়েছিলেন৷ তখনই খবর পান, তাঁর ছেলে ও পুত্রবধূ গলায় ফাঁসি দিয়েছে৷ খবর পেয়েই তিনি বাড়ি ফিরে আসেন৷ দেখেন, পাড়ার লোকজন ঘরের দরজা ধাক্কাধাক্কি করছে ৷ একসময় ঘরের দরজা ভেঙে যায়৷ তিনি ছেলেকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান৷ পরে দেখা যায়, অর্চনাও গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলে পড়েছে৷ পাড়ার লোকজন সঙ্গে সঙ্গে দুজনকেই মালদা মেডিক্যালে নিয়ে আসে৷ কিন্তু চিকিৎসকরা তাঁর পুত্রবধূকে মৃত বলে ঘোষণা করেন৷ তাঁর ছেলের অবস্থাও খুব খারাপ৷

এদিকে ঘটনার খবর পেয়েই কালিন্দ্রী গ্রামে ছুটে যান মানিকচক থানার ওসি কুণাল দাস৷ এলাকায় খোঁজখবর নিয়ে পুলিশ জানতে পেরেছে, রাম ও অর্চনার মধ্যে কিছুদিন ধরেই কলহ চলছিল৷ তবে সেই দাম্পত্য কলহের কারণ কী, তা এখনও জানতে পারেনি পুলিশ৷ কুণালবাবু জানিয়েছেন, আপাতত তাঁরা একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করেছেন৷ এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কেউ তাঁদের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেনি৷ লিখিত অভিযোগ হলে তাঁরা পরবর্তী ব্যবস্থা নেবেন৷

ছবি সৌজন্যে পিক্স অ্যাবে।

Tags:

16 views

বিজ্ঞাপন

Valentines-day.jpg
পপুলার

1532

1

মালদায় পা রেখেই বিরোধী শূন্য করার হুঙ্কার ইয়াসিনের

মালদায় পা রেখেই বিরোধী শূন্য করার হুঙ্কার ইয়াসিনের

617

2

নেত্রীর আগেই নিজেকে প্রার্থী ঘোষণা সাবিত্রীর

নেত্রীর আগেই নিজেকে প্রার্থী ঘোষণা সাবিত্রীর

870

3

দেড়শো জননেতা সহ গেরুয়া শিবিরে তৃণমূলের মালদা জেলা সাধারণ সম্পাদক

দেড়শো জননেতা সহ গেরুয়া শিবিরে তৃণমূলের মালদা জেলা সাধারণ সম্পাদক

1804

4

এখন ১২ মাস কাজ করবে মালদার সিভিক ভলান্টিয়াররা

এখন ১২ মাস কাজ করবে মালদার সিভিক ভলান্টিয়াররা

639

5

কাল মালদায় মমতা, সভামঞ্চে উঠতে করোনা পরীক্ষা

কাল মালদায় মমতা, সভামঞ্চে উঠতে করোনা পরীক্ষা
Earnbounty_300_250_0208.jpg
At the Grocery Shop
টাটকা আপডেট

সাবস্ক্রিপশন

স্বত্ব © ২০২০ আমাদের মালদা

  • Facebook
  • Twitter
  • Instagram
  • YouTube
  • Pinterest
  • RSS