বিজ্ঞাপন

উত্তর মালদায় চাষিকে লাভের মুখ দেখাচ্ছে ড্রাগন

দু’বছর আগে ২০১৮ সালে ১৫ কাঠা জমিতে পরীক্ষামূলকভাবে ড্রাগন ফলের চাষ শুরু করেন চাঁচল ১ ব্লকের মকদমপুরের অন্তর্গত শীতলপুরের চাষি নাজিমুদ্দিন শেখ। বছরের পর বছর ধান ও পাট চাষ করে ক্লান্ত হয়ে বিভিন্ন সংবাদপত্র ও ইউটিউব ভিডিয়োয় ড্রাগন চাষ সম্পর্কে জেনেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন নাজিমুদ্দিন সাহেব।


অল্প সময়ে কম পুঁজিতে ড্রাগন ফল চাষ করে স্বাবলম্বী হওয়াতে আগ্রহী চাঁচলের কৃষকরা



চাঁচলের মাটি ও আবহাওয়া ড্রাগন ফলের চাষের জন্য উপযোগী হবে কি না তা নিয়ে দ্বন্দ্বে ছিলেন নাজিমুদ্দিন সাহেব। তবে ড্রাগন চাষে সফল হয়েছেন তিনি। বাজারে ভালো দাম ও চাহিদা থাকায় এলাকায় অন্যান্য চাষিদের ড্রাগন ফলের চাষে আগ্রহ দেখা দিচ্ছে। অল্প সময়ে কম পুঁজিতে ড্রাগন ফল চাষ করে স্বাবলম্বী হওয়াতে আরও আগ্রহী এলাকাবাসী। জানা গেছে, যেসব জমি সম্পূর্ণভাবে সূর্যের আলো পায়, বর্ষায় জল ওঠে না বা স্যাঁতস্যাঁতে থাকে না, এমন জমিতে ড্রাগন ফলের চাষ করা সহজ। চাষ করার মাত্র নয় মাসের মধ্যে গাছে ফল ধরতে শুরু করে।


নাজিমুদ্দিন, কৃষক

৪-৫ বছরের একটির পূর্ণাঙ্গ গাছ থেকে এক কেজি পর্যন্ত ওজনের ফল পাওয়া যায়। একটি গাছ থেকে বছরে ৮০ কেজি পর্যন্ত ফল হতে পারে।


নাজিমুদ্দিন জানান, একটি ফলের ওজন ২০০ থেকে ৩০০ গ্রাম পর্যন্ত হয়। তবে ৪-৫ বছরের একটির পূর্ণাঙ্গ গাছ থেকে এক কেজি পর্যন্ত ওজনের ফল পাওয়া যায়। একটি গাছ থেকে বছরে ৮০ কেজি পর্যন্ত ফল হতে পারে। তিনি আরও জানান, ২০১৮ সালের মার্চ মাসে ড্রাগন চাষের পরিকল্পনা করেন। প্রথমে সিমেন্ট দিয়ে পিলার তৈরি করে এই গাছের চারা লাগিয়েছিলেন। তবে তা বিফলে যায়। পরে পিলারের পরিবর্তে বাঁশ দাঁড় করিয়ে একটি বাঁশের চারপাশে চারটি করে চারা রোপণ করেন। পনেরো মাস পরেই ফল ধরতে শুরু করে। ড্রাগন ফলনের অধিক লাভ হবে বলে আশায় রয়েছেন তিনি।


রফিকুল হোসেন, কৃষি, সেচ ও সমবায়ের কর্মাধ্যক্ষ

আমাদের রাজ্যে ড্রাগন সম্ভাবনাময় ফল। ফলটিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-সি আছে। ক্যান্সারসহ অনেক জটিল রোগের প্রতিরোধক হিসেবে কাজ করে।

এদিকে, এলাকায় নতুন ধরনের চাষের খবর পেতেই পরিদর্শনে যান কৃষি, সেচ ও সমবায়ের কর্মাধ্যক্ষ রফিকুল হোসেন। তিনি জানান, উত্তর মালদায় এই প্রথম ড্রাগন ফলের চাষ চাঁচলে শুরু হয়েছে। জেলা সমাহর্তা এলাকায় ড্রাগন চাষ ছড়াতে ও চাষিদের আগ্রহী করতে বলেছেন। নাজিমুদ্দিন সাহেবের ড্রাগনের চাষ দেখে অন্য চাষিরা ড্রাগন চাষে আগ্রহী হচ্ছেন। তিনি আরও বলেন, আমাদের রাজ্যে ড্রাগন সম্ভাবনাময় ফল। এর পুষ্টিগুণ অনেক। ফলটিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-সি আছে। ক্যান্সারসহ অনেক জটিল রোগের প্রতিরোধক হিসেবে কাজ করে। নাজিমুদ্দিন সাহেবকে জেলা কৃষিদপ্তর থেকেও সহায়তা করা হবে।

1,254 views

বিজ্ঞাপন

MGH.jpg
পপুলার
1

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে মালদায় মৃত ১৬

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে মালদায় মৃত ১৬
2

চোরাই মোবাইল পাচারচক্রের হদিশ, ধৃত তিন

চোরাই মোবাইল পাচারচক্রের হদিশ, ধৃত তিন
3

সরানো হল মালদা সদর মহকুমাশাসককে

সরানো হল মালদা সদর মহকুমাশাসককে
4

কেন ইংলিশবাজার? নাম পরিবর্তনের ইচ্ছে বিজেপি প্রার্থীর

কেন ইংলিশবাজার? নাম পরিবর্তনের ইচ্ছে বিজেপি প্রার্থীর
5

ইংরেজবাজারে উদ্ধার মানুষের মাথার খুলি

ইংরেজবাজারে উদ্ধার মানুষের মাথার খুলি
Earnbounty_300_250_0208.jpg
At the Grocery Shop