বন্ধ মহদিপুর সীমান্ত বাণিজ্য, লোকসান কয়েক কোটি

বন্ধ মহদিপুর সীমান্ত বাণিজ্য, লোকসান কয়েক কোটি


বাংলাদেশি এক্সপোর্টার্সদের অসহযোগিতায় বন্ধ হয়ে যাচ্ছে মহদিপুর স্থল বাণিজ্য বন্দর দিয়ে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য৷ একথা জানিয়ে দিয়েছেন মহদিপুর সি অ্যান্ড এফ এজেন্ট ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক৷ এই ঘটনার জেরে আগামীকাল থেকে কোটি কোটি টাকা ক্ষতির মুখে পড়তে চলেছে ভারত সরকার৷

মহদিপুর সি অ্যান্ড এফ এজেন্ট ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক ভূপতি মণ্ডল এদিন জানিয়েছেন, মাসখানেক আগে বাংলাদেশের সোনা মসজিদ ইমপোর্টার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স গ্রুপ বৈদেশিক বাণিজ্যের ক্ষেত্রে বেশ কিছু অযৌক্তিক দাবি তোলে৷ তারা এদেশ থেকে পাথর রপ্তানিকারি গাড়িগুলি ভাঙা ও খারাপ থাকার অভিযোগ তুলে দাবি করে, নতুন লরিতে সেদেশে পাথর রপ্তানি করতে হবে৷ প্রতিটি লরিতে চালকের সঙ্গে খালাসি পাঠাতে হবে৷ তারা আরও দাবি করে, কোনো মালের ক্ষেত্রেই এদেশে লাগু হওয়া জিএসটি তারা দেবে না৷এমনকি অ্যাডভান্স ট্যাক্স দিতেও তারা অস্বীকার করে৷ ভারতীয় পণ্যবাহী লরিগুলি বাংলাদেশে ঢোকার পর সেখানকার পানামা বন্দরে মাল খালি করে ফিরে আসে৷ কিন্তু পানামা বন্দর অত্যন্ত ছোটো৷ সেখানে বেশি লরি থাকতে পারে না৷ ফলে ভারতীয় লরিগুলি মাল নিয়ে একবার সেখানে গেলে কতদিনে ফের দেশে ফিরে আসবে তার কোনও নিশ্চয়তা থাকে না৷ সেক্ষেত্রে বাংলাদেশি আমদানিকারকদের দাবি অনুযায়ীই অ্যাডভান্স ট্যাক্স প্রথা চালু হয়েছিল৷ অর্থাৎ যে লরিগুলি পাথর নিয়ে বাংলাদেশে যাচ্ছে, সেই মালের ক্ষেত্রে বাংলাদেশি আমদানিকারকরা আগে থেকেই সমস্ত ট্যাক্স মিটিয়ে দিতেন৷ ফলে পাথরবোঝাই লরিগুলিকে পানামা বন্দরে দিনের পর দিন আটকে থাকতে হত না৷ কিন্তু সম্প্রতি বাংলাদেশি ইমপোর্টাররা নিজেদের চালু করা অ্যাডভান্স ট্যাক্স প্রথা বন্ধ করে দেয়৷ এই সমস্যায় গত ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে বাংলাদেশে পাথর রপ্তানি বন্ধ হয়ে রয়েছে৷ সমস্যা সমাধানে ভারতীয় রপ্তানিকারকদের পক্ষ থেকে বার বার বাংলাদেশি আমদানিকারকদের আলোচনায় বসার প্রস্তাব দেওয়া হয়৷ কিন্তু তারা সেই আবেদনে সাড়া দেয়নি৷ অবশেষে গত ১ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ ও ভারতীয় আমদানি ও রপ্তানিকারকদের মধ্যে একটি বৈঠক হয়৷ সেখানে কিছু কথাবার্তা হলেও বাংলাদেশি আমদানিকারকরা নিজেদের দাবিতে অটল থাকে৷ সেখানেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, এনিয়ে রবিবার জিরো পয়েন্টে ফের আলোচনায় বসা হবে৷ আলোচনায় সমস্যার সমাধান হয়ে গেলে এদিন থেকেই বাংলাদেশে অন্যান্য মালের সঙ্গে পাথর রপ্তানি চালু করা হবে৷ তা না হলে সোমবার থেকে সেদেশে কোনও মাল রপ্তানি করা হবে না৷ সেই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এদিন তাঁরা নির্দিষ্ট সময়ে জিরো পয়েন্টে উপস্থিত ছিলেন৷ কিন্তু দীর্ঘ সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরেও বাংলাদেশি আমদানিকারকরা সেখানে উপস্থিত হননি৷ তাই তাঁরা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, আজ থেকে কোনও মাল বাংলাদেশে পাঠানো হবে না৷

এদিকে এদিনই সোনা মসজিদ ইমপোর্টার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স গ্রুপের সম্পাদক তৌফিকুর রহমান বাবু মহদিপুর এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনে চিঠি দিয়ে জানিয়েছেন, তাঁরা মনে করেন, পাথর রপ্তানিকে কেন্দ্র করে যে সমস্যা দেখা দিয়েছে, তা জিরো পয়েন্টে বৈঠক করে সমাধান করা যাবে না৷ তাই তাঁরা দু’তিনদিন পর সংস্থার সোনা মসজিদ দপ্তর কিংবা সোনা মসজিদ স্থল শুল্ক বন্দরের সি অ্যান্ড এফ-এর কার্যালয়ে যৌথ সভার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করতে চান৷ এনিয়ে অবশ্য মহদিপুর এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন কী সিদ্ধান্ত নিচ্ছে, তা এদিন জানা যায়নি৷

বিজ্ঞাপন

হেডলাইন

প্রতিবেদন

রাতভর বিনিদ্র হাট

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সেই ছড়াটি মনে আছে তো? ‘হাট বসেছে শুক্রবারে, বকসিগঞ্জের পদ্মা পাড়ে৷ জিনিসপত্র জুটিয়ে এনে, গ্রামের মানুষ বেচে কেনে’...

বিজ্ঞাপন

ফলো করুন
  • Facebook
  • Instagram
  • Twitter
  • YouTube
  • Pinterest
পপুলার

ছয় হাজার লিটার স্যানিটাইজার তৈরি করল এক স্বনির্ভর গোষ্ঠী

জেলাপ্রশাসনের উদ্যোগে স্যানিটাইজার তৈরির প্রক্রিয়া খতিয়ে দেখলেন জেলাশাসক রাজর্ষি মিত্র। শনিবার দুপুরে ইংরেজবাজার ব্লকের কোতোয়ালি গ্রাম...

সব খবর ইনবক্সে!

প্রতিদিন খবরের আপডেট পেতে সাবস্ক্রাইব করুন

বিজ্ঞাপন

Aamader Malda Worldwide, the only media of your hometown and its thoughts. Here you can share and express your views and thoughts and you'll get here the essence of MALDAIYA CULT...

You can reach us via email or phone.  P +91 3512-260260  E response@aamadermalda.in

  • Facebook
  • Twitter
  • YouTube
  • Pinterest
  • Instagram
  • RSS

Copyright © 2020 Aamader Malda. All Rights Reserved.