top of page

ওল্ড মালদায় গড়ে উঠছে আইটি হাব

কিছুদিন আগেও মালদার মানুষ যখনই কলকাতার সল্টলেক এলাকায় গিয়েছে, মুখ উঁচু করে তাকিয়ে থেকেছে সেখানকার সেক্টর ফাইভের আকাশছোঁয়া বাড়িগুলির দিকে। খোঁজ নিয়ে জেনেছে, সেসব নাকি আইটি সেক্টরের অধীনে। আইটি সেক্টর কী? সেখানে কী কাজ হয়? কিছুদিন আগেও তা অজানা ছিল অনেকেরই। তবে এখন বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে মালদার মানুষের আইটি সেক্টর আর অজানা কোনো বিষয় নয় তাদের কাছে। এই আবহেই মালদাতেও মাথা তুলছে সেক্টর ফাইভের ক্ষুদ্রতম এক সংস্করণ। পুরাতন মালদার নলডুবিতে জোরকদমে চলছে আইটি হাব নির্মাণের কাজ।


IT Park Malda

পুরাতন মালদার নলডুবিতে জোরকদমে চলছে আইটি হাব নির্মাণের কাজ।

সম্প্রতি মালদা সফরে এসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জেলা ক্রীড়া সংস্থার মাঠ থেকে পুরাতন মালদায় একটি আইটি হাবের উদ্‌বোধন করেন। তার আগে পর্যন্ত সাধারণ মানুষ দূর অস্ত, বিষয়টি জানা ছিল না জেলা প্রশাসনের অনেকেরই। এমনকি এখনও এবিষয়ে বিশেষ কিছু জানা নেই পুরাতন মালদার বিডিও নরোত্তম বিশ্বাসের। এব্যাপারে তাঁকে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, নলডুবি এলাকায় একটি নীচু জমি একশো দিনের কাজ প্রকল্পে তাঁরা ভরাট করে দিয়েছেন। প্রশাসনিকভাবে তাঁদের কাছে সেই নির্দেশই এসেছিল। সেখানে তিনতলা আইটি হাব নির্মাণের কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। এর থেকে বেশি আর তাঁর জানা নেই।

১৯৬৭ সালে মুম্বইয়ে টাটা গোষ্ঠীর হাত ধরে ভারতবর্ষে তথ্যপ্রযুক্তি সেক্টরের আমদানি হয়। ওই গোষ্ঠীর প্রচেষ্টাতেই ১৯৭৩ সালে মুম্বইয়ে প্রথম গড়ে ওঠে আইটি পার্ক। ১৯৮০ সালের মধ্যে এই পার্ক ফুলেফেঁপে ওঠে। দেশের ৮০ শতাংশ সফটওয়্যার এই পার্কের মাধ্যমে এক্সপোর্ট হয়। এরপর কম্পিউটারের দুনিয়ায় নিঃশব্দ বিপ্লব ঘটে গিয়েছে। ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবে বাঁধা পড়েছে গোটা বিশ্ব। এই রাজ্যেও তার ব্যতিক্রম নয়। বিগত বাম আমলেই সল্টলেকে গড়ে উঠেছিল তথ্যপ্রযুক্তির রাজ্য। সেটাই সেক্টর ফাইভ নামে পরিচিত। কী কাজ হয় না এখানে ! নতুন সফটওয়্যার তৈরি, সরকারি ও বেসরকারি সমস্ত তথ্য একত্রীভূত করা, মোবাইল ফোন থেকে শুরু করে বাড়ির বিদ্যুৎ পরিসেবায় সমস্যার সমাধান, যাবতীয় কাজই সেক্টর ফাইভের বিভিন্ন কোম্পানিতে হয়ে থাকে। এইসব কোম্পানিগুলিতে হাজার হাজার ছেলেমেয়ে কাজ করছে।

জানা গিয়েছে, পুরাতন মালদার আইটি হাবে শুধুমাত্র ওয়েবেল কোম্পানি নিজেদের অফিস খুলবে। সল্টলেকের মতো যাবতীয় কাজ সেখানে হবে। এই জেলার ব্যাবসা ও সরকারি ক্ষেত্রে তথ্য আদানপ্রদানের কাজ এই হাব থেকেই পরিচালিত হবে। সেখানে তৈরি হবে কল সেন্টারও। আর তা নিয়ে উৎফুল্ল পুরাতন মালদা পুরসভার চেয়ারম্যান কার্তিক ঘোঘ। তিনি জানান, আইটি হাব নির্মাণ হলে নলডুবি সংলগ্ন এলাকার মানুষের আর্থ সামাজিক পরিকাঠামোর প্রভূত উন্নতি হবে। এলাকার নকশাও আমূল পালটে যাবে। সবচেয়ে বড়ো বিষয়, এলাকার শিক্ষিত ছেলেমেয়েরা ওই হাবে চাকরির সুযোগ পাবেন। তাই তাঁরাও এই হাবের কাজ শুরুর দিকে তাকিয়ে রয়েছেন।


আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Comentarios


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page