top of page

টিটেনাসের বদলে জলাতঙ্কের ইনজেকশন, বিক্ষোভ হাসপাতালে

টিটেনাস প্রতিরোধী ইনজেকশনের বদলে জলাতঙ্ক প্রতিরোধী ইনজেকশন দেওয়ার অভিযোগ অভিযোগ উঠল হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রামীণ হাসপাতালে। এই ঘটনায় কর্তব্যে গাফিলতির অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ দেখান স্থানীয় বাসিন্দারা। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন হাসপাতালের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান।


স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সেলাই করার সময় কাঁচি দিয়ে গতকাল হাতে তালু কেটে গিয়েছিল হরিশ্চন্দ্রপুরের কলমপাড়ার বাসিন্দা সংগীতা গুপ্তার। তিনি হাসপাতালে গেলে চিকিৎসকরা তাঁকে টিটেনাস প্রতিরোধী ইনজেকশন নেওয়ার পরামর্শ দেন। এরপর তিনি কর্তব্যরত নার্সের কাছে ইনজেকশন নিতে যান। পরপর তিনটি ইনজেকশন দিতে যাওয়ায় তাঁর সন্দেহ হয়। এরপর তিনি নার্সের কাছে জানতে চান, তাঁকে কি ইনজেকশন দেওয়া হচ্ছে। তখনই তিনি বিষয়টি জানতে পারেন। বিষয়টি জানতে পেরেই তিনি ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক অমলকৃষ্ণ মণ্ডলের কাছে ছুটে যান।


সংগীতাদেবী জানান,

কাজ করার সময় কাঁচি দিয়ে হাত কেটে যাওয়ায় তিনি টক্সাইড নিতে হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রামীণ হাসপাতালে যান। সেখানে তাঁকে টক্সাইডের বদলে কুকুরে কামড়ানোর ইনজেকশন দেওয়া হয়। একের পর এক ইনজেকশন দেওয়ায় তাঁর সন্দেহ হয়। নার্সকে প্রশ্ন করে তিনি বিষয়টি জানতে পারেন। বিষয়টি নিয়ে তিনি ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিকের কাছে ছুটে গেলে, তাঁকে জানানো হয়, বাকি ডোজগুলি নিয়ে নিলে ভয়ের কিছু নেই।


বিষয়টি জানাজানি হতেই চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ তুলে আজ হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রামীণ হাসপাতালে বিক্ষোভ দেখান স্থানীয় বাসিন্দারা। ঘটনা প্রসঙ্গে হাসপাতালের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান জানান, বিষয়টি তিনি শুনেছেন। ওই মহিলা টক্সাইড নিতে গেলে হাসপাতালে তাঁকে কুকুর-বিড়াল কামড়ানোর ইনজেকশন দেওয়া হয় বলে অভিযোগ উঠেছে। তবে নার্সরা তাঁকে জানিয়েছেন, ওই মহিলাকে সঠিক ইনজেকশনই দেওয়া হয়েছে। যখন অভিযোগ উঠেছে, তখন ঘটনাটি নিয়ে তদন্ত হবে।




আমাদের মালদা এখন টেলিগ্রামেও। জেলার প্রতিদিনের নিউজ পড়ুন আমাদের অফিসিয়াল চ্যানেলে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন

Comments


বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page