বিজ্ঞাপন

স্ত্রীর কাছে দাবি এক লক্ষ টাকার, অস্বীকারে মারধর



এক গৃহবধূকে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে পুরাতন মালদায়৷ অভিযোগ করা হয়েছে স্বামী সহ শ্বশুরবাড়ির সদস্যদের বিরুদ্ধে৷ বৃহস্পতিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে পুরাতন মালদার নারায়ণপুর সংলগ্ন মালিগ্রামে৷ আহত ওই বধূ বর্তমানে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন৷ এই ঘটনায় ওই বধূর বাবার বাড়ির তরফে মালদা থানায় অভিযোগ জানানো হয়েছে৷ তবে এখনও পর্যন্ত পুলিশ অভিযুক্ত স্বামীকে গ্রেফতার করেনি৷

নিগৃহীত বধূর নাম রুম্পা রায়৷ তাঁর বাবার বাড়ি পুরাতন মালদা এলাকাতেই৷ বাবা ও মা, দুজনেই অসুস্থ৷ বছর কয়েক আগে তাঁর বিয়ে হয় মালিগ্রামের মিঠুন রায়ের সঙ্গে৷ মিঠুন পেশায় শ্রমিক৷ ভিনরাজ্যেও কাজে যায় সে৷ রুম্পাদেবীর অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই বাবার বাড়ি থেকে টাকা আনার জন্য তাঁকে মাঝেমধ্যেই চাপ দিত মিঠুন সহ তার বাবা-মা এবং ভাই ও ভাতৃবধূও৷ টাকা না আনলে স্বামীর সঙ্গে শ্বশুর-শাশুড়ি, দেওর ও জা সকলে মিলে তাঁকে মারধর করত৷ তাঁর বাবা-মা অত্যন্ত গরিব৷ কথায় কথায় টাকা বের করার ক্ষমতা নেই তাঁদের৷ তাসত্ত্বেও প্রথমদিকে কয়েকবার তাঁরা মিঠুনকে টাকা দেন৷ কিন্তু অসুস্থতার জন্য এখন তাঁদের আর কাজ করার ক্ষমতা নেই৷ মিঠুনের দাবি মতো টাকাও তাঁরা আর দিতে পারেন না৷ এদিকে স্বামীর টাকার দাবি দিন দিন বাড়তে থাকে৷ টাকা না পেলে সে তাঁকে মারধর করতেও ছাড়ত না৷ বাড়ির অন্য সদস্যরাও হাত চালাতে পিছু পা হত না৷ স্বামীর দাবি মেটাতে তিনি মিঠুনের সঙ্গে শ্রমিকের কাজ করতে দিল্লি যান৷ নিজের উপার্জন দিয়ে স্বামীর টাকার দাবি মেটাতে থাকেন৷ গ্রামে ফিরেও তিনি কাজ করতে শুরু করেন৷ শ্বশুরবাড়ির সদস্যদের টাকার দাবি মেটানোর জন্যই তিনি সেই পথ বেছে নেন৷ কিন্তু এভাবে মিঠুনের দাবির পরিমাণ দিন দিন বাড়তে থাকে৷ এবার সে বাবার বাড়ি থেকে এক লক্ষ টাকা আনার জন্য তাঁকে চাপ দিতে থাকে৷ মিঠুনের দাবির সঙ্গে একই চাপ দিতে থাকে শ্বশুরবাড়ির সবাই৷ তিনি সবাইকে জানিয়ে দেন, এত টাকার ব্যবস্থা করা তাঁর বাবা-মা’র পক্ষে সম্ভব নয়৷ সেকথা শুনে গতকাল রাতে তাঁকে বেধড়ক মারধর করে মিঠুন সহ শ্বশুরবাড়ির সকলে৷ এদিন সকালে তিনি বাড়ি ছেড়ে চলে যান বাবার বাড়িতে৷ পরে তাঁকে মালদা মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করা হয়৷

রুম্পাদেবীর জানান, মিঠুনের জুয়াখেলার নেশা রয়েছে দীর্ঘদিন থেকেই৷ তাঁর বাবা-মা কিংবা তিনি নিজে পরিশ্রম করে যে টাকা তাকে দিয়েছিলেন, সেসবই সে জুয়ায় উড়িয়েছে৷ তার এই নেশার কথা জানে তার পরিবারের অন্যান্যরাও৷

মালদা থানার পুলিশ জানিয়েছে, এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কোনও লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়নি৷ অভিযোগ দায়ের হলেই অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হবে৷

#DigitalDesk #Crime

8 views

বিজ্ঞাপন

MGH-Advt.jpg
পপুলার
1

চোরাই মোবাইল পাচারচক্রের হদিশ, ধৃত তিন

চোরাই মোবাইল পাচারচক্রের হদিশ, ধৃত তিন
2

সরানো হল মালদা সদর মহকুমাশাসককে

সরানো হল মালদা সদর মহকুমাশাসককে
3

কেন ইংলিশবাজার? নাম পরিবর্তনের ইচ্ছে বিজেপি প্রার্থীর

কেন ইংলিশবাজার? নাম পরিবর্তনের ইচ্ছে বিজেপি প্রার্থীর
4

ইংরেজবাজারে উদ্ধার মানুষের মাথার খুলি

ইংরেজবাজারে উদ্ধার মানুষের মাথার খুলি
5

করোনায় আক্রান্ত রেলকর্মীর মৃত্যু, আতঙ্ক মালদা শহরে

করোনায় আক্রান্ত রেলকর্মীর মৃত্যু, আতঙ্ক মালদা শহরে
Earnbounty_300_250_0208.jpg
টাটকা আপডেট