বিজ্ঞাপন

কোর্ট চত্বরেই জাল বিমা চক্র

জেলা আদালত চত্বরেই চলছিল গাড়ির বিমা করার জালিয়াতি চক্র৷ সেই চক্রের কারবারিরা খোদ আইনজীবীকেই নিশানা করে ফেলে৷ সন্দেহ হওয়ায় ওই আইনজীবী সহ জেলা আদালতের অন্যান্য আইনজীবীদের সৌজন্যে ফাঁস হয়েছে সেই চক্রের কার্যকলাপ৷ এই ঘটনায় আপাতত দু’জনকে গ্রেফতার করেছে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ৷ যদিও চক্রের মূল পাণ্ডা এখনও অধরা৷ গোটা ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে জেলা আদালত চত্বরে৷


ঘটনার সূত্রপাত শুক্রবার বিকেলে৷ মালদা জেলা আদালতের আইনজীবী পুষ্পেন্দু সরকার জানান, তাঁর ভাই সিঞ্চন সরকারের নামে একটি মোটরবাইক রয়েছে৷ সেই বাইকের বিমার মেয়াদ গত ১ ফেব্রুয়ারি রাত ১২টায় শেষ হয়ে যায়৷ পরদিন তিনি আদালতে এসে ওই বিমা কোম্পানির এজেন্টকে ডেকে পাঠান৷ এজেন্ট এসে তাঁর কাছে সমস্ত নথিপত্র সহ ৭১২ টাকা নিয়ে যায়৷ এক ঘণ্টা পরই সে বিমার নতুন শংসাপত্র তাঁর হাতে তুলে দেয়৷ কিন্তু সেই শংসাপত্রে থাকা বিমা কোম্পানির শিলমোহর দেখে তাঁর সন্দেহ হয়৷ তিনি অন্যান্য আইনজীবীকেও শংসাপত্রটি দেখান৷ সন্দেহ-প্রকাশ করেন তাঁরাও৷ এরপরেই তাঁরা ওই এজেন্ট সুমন শেখের কাছে যান৷ সুমনের বাড়ি পুরাতন মালদার মঙ্গলবাড়ি এলাকার সামুন্ডাই পাড়ায়৷ জেরার মুখে সুমন স্বীকার করে, বিমার শংসাপত্রটি জাল৷ আবগারি দপ্তরের দপ্তরের পাশে থাকা একটি কালার জেরক্সের দোকান থেকে সে শংসাপত্রটি ছাপিয়েছে৷ সে আরও স্বীকার করে, ওই জেরক্স দোকানের মালিক, মালদা শহরের গয়েশপুরের বাসিন্দা পিটু সরকার সহ মকদুমপুর বারোয়ারিতলা লেনের বিশাল ঘোষ ও মীরচকের বাসিন্দা কাদের মাহালত এই জাল বিমা প্রতারণা চক্রের সঙ্গে যুক্ত৷ তাদের কথাতেই দীর্ঘদিন ধরে সে এই সমস্ত জাল শংসাপত্র তৈরি করে৷ এই ঘটনায় গতকাল রাতে তিনি ৪ জনের বিরুদ্ধে ইংরেজবাজার থানায় প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করেছেন৷

অভিযোগ দায়েরের পরেই ইংরেজবাজার থানার পুলিশ গতকাল রাতে দুই অভিযুক্ত কাদের মাহালত ও বিশাল ঘোষকে গ্রেফতার করে৷ তবে বাকি দুই অভিযুক্ত পলাতক৷ তাদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ৷ ধৃত দু’জনের বিরুদ্ধে ভারতীয় আইনের ৪৬৮, ৪৭১ ও ৪২০ ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে৷ এদিন ধৃতদের জেলা আদালতে পেশ করা হয়েছে৷ অভিযুক্ত দু’জনকে নিজেদের হেপাজতে নেওয়ার জন্য আবেদন জানানো হয়নি বলে জানিয়েছেন ইংরেজবাজার থানার আইসি পূর্ণেন্দু কুণ্ডু৷ তিনি জানান, তাঁরা মূল অভিযুক্তের সন্ধানে রয়েছেন৷ তাকেই তাঁরা হেপাজতে নিতে চান৷

তবে খোদ আদালত চত্বরে এমন ঘটনা ঘটার খবরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে শহর জুড়ে৷ যে জায়গায় ওই জেরক্সের দোকানটি রয়েছে, তার সামনেই জেলা মুখ্য দায়রা বিচারকের আদালত ও পুলিশ সুপারের অফিস৷ এমন একটি জায়গায় কীভাবে এই প্রতারণা চক্র দীর্ঘদিন ধরে নিজেদের ব্যাবসা চালিয়ে আসছে, তা ভেবে পাচ্ছেন না কেউ৷

#Crime #DigitalDesk

বিজ্ঞাপন

MGH
পপুলার
1

অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে মালদায় এল করোনা ভ্যাকসিন

1141

অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে মালদায় এল করোনা ভ্যাকসিন
2

বাসের জন্য নতুন স্টপেজ রথবাড়িতে

5442

বাসের জন্য নতুন স্টপেজ রথবাড়িতে
3

করোনার বিষ দাঁত ভেঙে শুরু হচ্ছে বইমেলা

671

করোনার বিষ দাঁত ভেঙে শুরু হচ্ছে বইমেলা
4

চাকরির টোপে প্রতারণার অভিযোগ জেলাপরিষদ সদস্যের বিরুদ্ধে

940

চাকরির টোপে প্রতারণার অভিযোগ জেলাপরিষদ সদস্যের বিরুদ্ধে
5

মালদায় জমে উঠেছে সোনাঝুড়ি হাট

3936

মালদায় জমে উঠেছে সোনাঝুড়ি হাট
Earnbounty_300_250_0208.jpg
At the Grocery Shop
টাটকা আপডেট

সাবস্ক্রিপশন

স্বত্ব © ২০২০ আমাদের মালদা

  • Facebook
  • Twitter
  • Instagram
  • YouTube
  • Pinterest
  • RSS