বিজ্ঞাপন

পুরসভার সাফাইকর্মীদের কর্মবিরতি

ইংরেজবাজার পুরসভার অস্থায়ী সাফাইকর্মীরা বেতন বৃদ্ধি ও প্রভিডেন্ড ফান্ডের রিসিট প্রদানের দাবিতে আজ সকাল থেকে মালদা শহরে কাজ বন্ধ করে দিলেন৷ সাফাইকর্মীদের কর্মবিরতিতে কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই নাভিশ্বাস উঠেছে শহরবাসীর৷ শহরের বিভিন্ন এলাকায় তৈরি হয়েছে জঞ্জালের স্তুপ৷ এই পরিস্থিতিতে শহরে নেই পুরসভার চেয়ারম্যানও৷



অস্থায়ী সাফাইকর্মীদের বক্তব্য, তাঁরা প্রতিদিন কাজ করে ১৫০ টাকা পারিশ্রমিক পান৷ কাজ না করলে পারিশ্রমিকের প্রশ্ন নেই৷ চলতি মাস থেকে তাঁদের বেতনের মধ্যে থেকে প্রভিডেন্ড ফান্ডের টাকা কাটা হচ্ছে৷ সেই ফান্ডে কারোর ৪৫০, কারোর ৫০০ টাকা কাটা হয়েছে৷ কিন্তু পুরসভার পক্ষ থেকে তার কোনও রিসিট তাঁদের দেওয়া হচ্ছে না৷ তাঁদের টাকা কোথায় গেল তা কেউ বুঝতে পারছেন না৷ শুধু এই ঘটনাই নয়, সম্প্রতি পুর কর্তৃপক্ষ ট্র্যাক্টরচালকদের বেতন বৃদ্ধি করেছে৷ কিন্তু তাঁদের বেতন বৃদ্ধি করা হয়নি৷ নিজেদের দাবি জানাতে তাঁরা চেয়ারম্যানের কাছে গিয়েছিলেন৷ কিন্তু তাঁদের প্রায় ধাক্কা মেরে সেখান থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে৷ শেষ পর্যন্ত বাধ্য হয়েই এদিন থেকে তাঁরা কর্মবিরতি শুরু করেছেন৷ যতক্ষণ না তাঁদের দাবি পূরণ করা হচ্ছে, ততক্ষণ তাঁরা কাজ করবেন না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন৷

এদিন সকাল থেকেই পুরসভার কনজারভেন্সি পরিবহণ বিভাগের সামনে বৃন্দাবনি ময়দানে জমায়েত শুরু করেন সাফাইকর্মীরা৷ ট্র্যাক্টরচালকরা কাজে এসে হতভম্ব হয়ে পড়েন৷ এক ট্র্যাক্টরচালক মানিক দাস বলেন, প্রতিদিনের মতো এদিন সকালেও তিনি কাজে আসেন৷ তখনই দেখেন, সাফাইকর্মীরা কাজ বন্ধ রেখে বৃন্দাবনি ময়দানে জড় হয়েছেন৷ তাঁরা দাবি করছেন, তাঁদের প্রভিডেন্ড ফান্ডের রিসিট দিতে হবে৷ ঘটনাস্থলে উপস্থিত পুরসভার স্যানিটারি ইন্সপেকটর তাপস কুণ্ডু বলেন, প্রভিডেন্ড ফান্ডের রিসিটের দাবিতে অস্থায়ী সাফাইকর্মীরা এদিন সকাল থেকে কর্মবিরতি শুরু করেছেন৷ তবে তাঁরা বেতন বৃদ্ধির দাবির কথা তাঁদের জানাননি৷ চেয়ারম্যান বিধানসভা অধিবেশনে যোগ দিতে এদিন কলকাতায়৷ তাঁকে গোটা বিষয়টি জানানো হয়েছে৷ তাঁরা পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার চেষ্টা করছেন৷

পুরসভা সূত্রে জানা গিয়েছে, চলতি মাস থেকেই অস্থায়ী কর্মীদের প্রভিডেন্ড ফান্ড চালু হয়েছে ৷ কর্মীদের বেতন থেকে তাঁদের অংশের টাকাও কাটা হয়েছে৷ প্রভিডেন্ড ফান্ড রিসিট মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে কর্মীরা জানতে পারেন৷ কিন্তু সেই পদ্ধতি চালু করতে অন্তত ২-৩ মাস সময় লাগে৷ অস্থায়ী সাফাইকর্মীদের সেকথা বোঝানোর চেষ্টা করা হলেও তাঁরা তা মানতে রাজি নন৷

পুর এলাকায় প্রায় ৬০০ অস্থায়ী সাফাইকর্মী কাজ করেন৷ এদিন সকাল থেকে তাঁরা সবাই কর্মবিরতি শুরু করায় স্বাভাবিকভাবেই শহর জুড়ে জঞ্জালের স্তুপ জমতে শুরু করেছে৷ প্রতিদিন শহরে প্রায় ৪০ টন আবর্জনা তৈরি হয়৷ সাফাইকর্মীরা দ্রুত কাজ শুরু না করলে সমস্যা নিশ্চিতভাবেই বাড়বে৷

#Misc #DigitalDesk

বিজ্ঞাপন

MGH.jpg
পপুলার
1

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে মালদায় মৃত ১৬

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে মালদায় মৃত ১৬
2

চোরাই মোবাইল পাচারচক্রের হদিশ, ধৃত তিন

চোরাই মোবাইল পাচারচক্রের হদিশ, ধৃত তিন
3

সরানো হল মালদা সদর মহকুমাশাসককে

সরানো হল মালদা সদর মহকুমাশাসককে
4

কেন ইংলিশবাজার? নাম পরিবর্তনের ইচ্ছে বিজেপি প্রার্থীর

কেন ইংলিশবাজার? নাম পরিবর্তনের ইচ্ছে বিজেপি প্রার্থীর
5

ইংরেজবাজারে উদ্ধার মানুষের মাথার খুলি

ইংরেজবাজারে উদ্ধার মানুষের মাথার খুলি
Earnbounty_300_250_0208.jpg