বিজ্ঞাপন

মাধবনগরে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার মা মেয়ে

মাধবনগর ঘোষপাড়ায় বাড়ি তৈরি করবেন বলে জায়গা কিনেছিলেন পরিবারের কর্তা বিজয় কাতি। সেইজন্য মাস দেড়েক আগে বাড়ি ভাড়া করে কাছাকাছি বসবাস শুরু করেছিলেন নেপালি বংশোদ্ভুত মা ও মেয়ে। মায়ের বয়স আনুমানিক ৫৫, মেয়ের ২৪৷ পরিবারের কর্তা বিজয় কাতি মালদা জেলা পুলিশে ব্যান্ড বাদক কনস্টেবল ছিলেন। সেই সময় তাঁরা সবাই পুলিশ লাইনের কোয়ার্টারেই থাকতেন৷ বছর তিনেক আগে সেই কোয়ার্টারেই গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন বিজয়বাবু৷ তারপরেই তাঁর স্ত্রী ও মেয়ে মাস দেড়েক আগে ঘোষপাড়ায় বসবাস শুরু করেছিলেন৷



সকালে গৃহ পরিচারিকা শকুন্তলা মহলদার কাজ করতে এসে দেখেন, বাড়ির দরজা বন্ধ৷ কিন্তু দরজায় ধাক্কা দিতেই তা খুলে যায়৷ এরপরেই তিনি দেখতে পান, ঘরের ভিতর বিছানায় পড়ে রয়েছে মেয়ের রক্তাক্ত দেহ৷ মেঝেতে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন মা৷ পরিচারিকার চিৎকারে পাড়াপড়শিরা সেখানে ছুটে যান৷ এলাকার এক বাসিন্দা সুব্রত ঘোষ বলেন, এদিন সকালে তাঁরা সকলেই প্রাত্যহিক কাজে ব্যস্ত ছিলেন৷ তখনই তাঁরা মা ও মেয়েকে রক্তাক্ত অবস্থায় ঘরের ভিতর পড়ে থাকার খবর পান৷ ছুটে যান তিনিও৷ দেখতে পান, বিছানায় মেয়ের রক্তাক্ত দেহের পাশে পড়ে রয়েছে একটি রক্তাক্ত শিলনোড়া৷ তাঁদের অনুমান, ওই শিলনোড়া কিংবা অন্য কিছু ভারি জিনিস দিয়ে মা ও মেয়ের মাথায় আঘাত করে তাঁদের খুনের চেষ্টা করা হয়েছে৷ তাঁরা দেখেন, তখনও মা ও মেয়ে বেঁচে রয়েছেন৷ তাঁরা সঙ্গে সঙ্গে আহত দুজনকে মালদা মেডিক্যালে নিয়ে আসেন৷ ততক্ষণে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় ইংরেজবাজার থানার পুলিশও৷ পুলিশকর্মীরা তাঁদের সঙ্গেই হাসপাতালে ছুটে আসেন৷

এদিকে এলাকা সূত্রে জানা গিয়েছে, দিন তিনেক আগে প্রয়াত বিজয়বাবুর ভাই এই বাড়িতে এসেছিলেন৷ গতকাল রাত পর্যন্ত তাঁকে দেখতে পেয়েছেন এলাকার লোকজন৷ কিন্তু এদিন সকাল থেকে তাঁকে এলাকায় দেখতে পাওয়া যায়নি৷ এই ঘটনার পিছনে তাঁর হাত রয়েছে কিনা তা নিয়ে সন্দিহান স্থানীয় বাসিন্দারা৷ একই সন্দেহ পুলিশের৷ ঘটনা প্রসঙ্গে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ জানিয়েছে, প্রাথমিক তদন্তে তাদের অনুমান, সম্পত্তিগত বিবাদের জেরেই এই ঘটনা ঘটেছে৷ কারণ, ঘরের ভিতর থেকে মা ও মেয়ের রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার হলেও ঘরের কোনও জিনিস খোওয়া যায়নি বলেই মনে করছে তারা৷ তবে এখনও পর্যন্ত আহত মা ও মেয়ে কথা বলার মতো অবস্থায় নেই৷ এলাকাবাসীদের মুখে মেয়ের নাম লক্ষ্মী কাতি বলে জানা গেছে, মেয়ে অস্থি সংক্রান্ত বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন মহিলা। ঠিক মতো হাঁটতে পারে না। মায়ের নাম সুখু কাতি। গোটা ঘটনা নিয়ে পুলিশি তদন্ত শুরু হয়ে গিয়েছে৷ পুলিশের অনুমান, দ্রুত এই ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করা যাবে৷

প্রতীকী ছবি সৌজন্যে পিক্স অ্যাবে।

#Crime #DigitalDesk

বিজ্ঞাপন

MGH.jpg
পপুলার
1

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে মালদায় মৃত ১৬

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে মালদায় মৃত ১৬
2

চোরাই মোবাইল পাচারচক্রের হদিশ, ধৃত তিন

চোরাই মোবাইল পাচারচক্রের হদিশ, ধৃত তিন
3

সরানো হল মালদা সদর মহকুমাশাসককে

সরানো হল মালদা সদর মহকুমাশাসককে
4

কেন ইংলিশবাজার? নাম পরিবর্তনের ইচ্ছে বিজেপি প্রার্থীর

কেন ইংলিশবাজার? নাম পরিবর্তনের ইচ্ছে বিজেপি প্রার্থীর
5

ইংরেজবাজারে উদ্ধার মানুষের মাথার খুলি

ইংরেজবাজারে উদ্ধার মানুষের মাথার খুলি
Earnbounty_300_250_0208.jpg